পদ্মা সেতুর খরচ কত টাকা | পদ্মা সেতুর খরচ কত ডলার

পদ্মা সেতুর খরচ কত টাকা পদ্মা সেতুর খরচ কত ডলার

পদ্মা সেতুর খরচ কত টাকা অথবা পদ্মা সেতুর খরচ কত ডলার এই সম্পর্কিত প্রশ্ন প্রায় সবাই করে থাকে। এজন্য অনেকে ইন্টারনেটেউ সার্চ করে থাকে। তবে এই সম্পর্কিত সঠিক ও সরল উত্তর কোথাউ দেয়া নেই। সেজন্য আমরা আমাদের এই লেখায় সহজ সরল ভাবে আলোচনা করব পদ্মা সেতুর খরচ কত টাকা এই বিশয় নিয়ে

পদ্মা সেতুর খরচ কত টাকা পদ্মা সেতুর খরচ কত ডলার

বন্ধুরা বিশ্বের দীর্ঘতম সেতু সমূহের মধ্যে পদ্মা সেতু একটি, যা পৃথিবীর মধ্যে বাংলাদেশের নাম উজ্জ্বল করেছেকারণ খরাপ্রবণ পদ্মা নদীর ওপর পদ্মা সেতু নির্মাণে প্রকৌশলীদের বেশ বেগ পেতে হয়েছেবিশ্বে পদ্মা নদীর মতো খরা নদী খুব কমই আছে, তাই বলা যায় প্রতিকূলতার দিক থেকে এই সেতু নির্মাণ অন্যান্য সেতুর তুলনায় অনেক বেশি কঠিন ছিল

পদ্মা সেতু দেশের দুই অঞ্চলকে সড়কপথে রাজধানী ঢাকার সঙ্গে যুক্ত করেছেঅর্থনীতিবিদরা মনে করেন, ঢাকা ও বরিশালের মধ্যে সংযোগ স্থাপনে এই সেতু অপরিহার্য ভূমিকা পালন করবে এবং পদ্মা সেতু বাংলাদেশের অর্থনীতি ও জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখবেপদ্মাসেতু নিয়ে ইংরেজিতে প্যারাগ্রাফঃ Padma Setu Paragraph in English | Padma Bridge Paragraph

পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার। তবে মাইলের হিসেব করলে পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য ৩ দশমিক ৮১ মাইল। এটি বর্তমানে বাংলাদেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো প্রকল্প এবং দীর্ঘতম অভ্যন্তরীণ অর্থায়নে নির্মিত সেতু।

আমাদের ফেসবুক পেইজ

আমাদের ফেসবুক গ্রুপ

এই পোস্টে আপনি পদ্মা সেতু তৈরির ইতিহাস, নির্মাণ প্রক্রিয়া এবং বাংলাদেশের উন্নয়নে এর অবদান সম্পর্কে কিছু আকর্ষণীয় সকল তথ্য সম্পর্কে জানতে পারবেন। সেই সাথে পদ্মা সেতুর খরচ কত টাকা এবং পদ্মা সেতুতে মোট ব্যয় ও অর্থায়ন সম্পর্কেও বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। পদ্মাসেতু রচনাঃ স্বপ্নের পদ্মা সেতু রচনা ১২০০ শব্দ | পদ্মা সেতু রচনা ১০০

আরও পড়ুনঃ  বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর টিকেট মূল্য | বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর টিকেট অনলাইন

আরও পড়ুন>>

আমরা আরও অন্বেষণ করব কিভাবে প্রকৌশলের এই অবিশ্বাস্য কীর্তি, বিশ্বের অন্যতম খরশ্রোতা নদী, পদ্মার তীরে, বাংলাদেশে নির্মিত, সারা দেশে সড়ক পরিবহন এবং ভ্রমণকে রূপান্তরিত করেছে এবং স্থানীয় সম্প্রদায়কে প্রভাবিত করেছে

পদ্মা সেতুর খরচ কত টাকা / পদ্মা সেতুর খরচ কত ডলার

পদ্মা সেতুর মোট ব্যয় ৩০ হাজার ১৯৩ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। ২০০৭ সালে তৎকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে পদ্মা সেতু প্রকল্পের ব্যয় ছিল অপরিকল্পিতভাবে

ফলে ২০১১ সালের ১১ জানুয়ারি প্রথম দফায় পদ্মা সেতুর ব্যয় সংশোধিত হয়। সে সময় পদ্মা সেতুর প্রাথমিক ব্যয় ধরা হয়েছিল ২০ হাজার ৫০৭ কোটি টাকা। পরে পদ্মা সেতুর ব্যয় আরও আট হাজার কোটি টাকা বাড়ানো হয়। ফলে পদ্মা সেতুতে মোট ব্যয় হয়েছে ২৮ হাজার ৭৯৩ কোটি টাকা।

পরবর্তীতে ডলারের মূল্য বৃদ্ধিতে ও আরো আনুষাঙ্গিক খরচ বৃদ্ধি পায়, যার ফলে পদ্মা সেতু তৈরিতে মোট ব্যয় ৩ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যায়।   আমেরিকান ডলারে হিসাব করলে পদ্মা সেতু তৈরিতে ব্যয় করা হয়েছে ৩.৫ বিলিয়ন ডলার বা ৩০ হাজার ১৯৩ দশমিক ৩৯ কোটি টাকা।

এসব খরচের মধ্যে রয়েছে পদ্মা সেতুর অবকাঠামো তৈরি, নদী শাসন, সংযোগ সড়ক, ভূমি অধিগ্রহণ, পুনর্বাসন ও পরিবেশ, বেতন ইত্যাদি।

অর্থাৎ পদ্মা সেতুর মোট ব্যয় ৩০,১৯৩.৩৯ কোটি টাকা।  বাংলাদেশের অর্থ বিভাগের সঙ্গে সেতু বিভাগের চুক্তি অনুযায়ী, পদ্মা সেতু নির্মাণে ২৯ হাজার ৮৯৩ কোটি টাকা ঋণ দেয় সরকার।

আরও পড়ুন>>

পদ্মা সেতুর জন্য ১ শতাংশ সুদ হারে যে টাকা ঋণ নেয়া হয়েছে সেই অর্থ ৩৫ বছরের মধ্যে সরকারকে পরিশোধ করবে সেতু কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুনঃ  সার্চ ইঞ্জিন কাকে বলে? সার্চ ইঞ্জিন হিসেবে google এর প্রয়োজনীয়তা

পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয় কত সালে / পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ কবে শুরু হয়

17 জুন, 2014, বাংলাদেশ সেতু বিভাগ পদ্মা বহুমুখী সেতু নির্মাণের জন্য চায়না রেলওয়ে মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপের সাথে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে

পরবর্তীতে 2014 সালের 26 নভেম্বর মূল পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়। 12 ডিসেম্বর, 2015, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা বহুমুখী সেতু নির্মাণের উদ্বোধন করেন

পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয় কত সালে
পদ্মা সেতুইতিহাস
পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে৭ই ডিসেম্বর ২০১৪
পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে২৫ জুন ২০২২
পদ্মা সেতুর খরচ হয়েছে৩০,১৯৩.৩৯ কোটি টাকা

পদ্মা সেতুর অর্থায়ন / পদ্মা সেতুর অর্থায়ন করেছে কোন দেশ

বাংলাদেশ সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। তাই মাথা উঁচু করে বলতে পারেন কোনো দেশ পদ্মা সেতুতে অর্থায়ন করেনি

পদ্মা সেতুর উদ্বোধন হয় কত তারিখে

পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করা হয় ২০২২ সালের ২৫ জুন। পদ্মা সেতুটি আনুষ্ঠানিকভাবে ২৫ জুন ২০২২ সালে উদ্বোধন করেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

এবং উদ্বোধনের ১ দিন পর ২৬ জুন ২০২২ তারিখে (পরের দিন) থেকে এটি সাধারণ মানুষের ব্যবহারের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়। বাংলাদেশের দক্ষিণ অঞ্চলের জনগনের বহুল প্রত্যাশিত পদ্মা বহুমুখী সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট উন্মোচন করেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।

পদ্মা সেতুর উদ্বোধন হয় কত তারিখে

আরও পড়ুন>>

পদ্মা সেতু উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিমানবাহিনীর যুদ্ধবিমান ও জঙ্গী হেলিকপ্টার অ্যারোবেটিক ডিসপ্লে ও ফ্লাইপাস প্রদর্শন করে সেতু এলাকায়। এছাড়াও সেতুটির উদ্বোধন উপলক্ষে পাকিস্তান, রাশিয়া, মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, ভুটান, চীন ওডেনমার্কসহ পৃথিবীর অনেক দেশের সরকার প্রধান ও রাষ্ট্রদূত অভিনন্দন বার্তা পাঠায়। 

এছাড়াও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পদ্মা সেতু নির্মাণে শুরু থেকেই দুর্নীতির অভিযোগকারী বিশ্বব্যাংকের কর্মকর্তারা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিশ্বব্যাংকের আবাসিক প্রতিনিধিও এবং বাংলাদেশ সরকারকে অভিনন্দন জানান।

পদ্মা সেতুর খরচ কত টাকা লেখার শেষ কথা

পদ্মা সেতু বিশ্বের দীর্ঘতম সেতু এবং একটি সত্যিকারের প্রকৌশল বিস্ময়। এই সেতুর নির্মাণ বাংলাদেশের দুটি সর্বাধিক জনবহুল অঞ্চলকে সংযুক্ত করেছে, যা তাদের মধ্যে বৃহত্তর অর্থনৈতিক সুযোগ এবং উন্নত সামাজিক একীকরণের অনুমতি দিয়েছে

আরও পড়ুনঃ  Titi Monkey Facts: বাবার কোলে বড় হয় টিটি বানরের বাচ্চারা, জানুন এখানে

আমরা তাদের সকলকে সাধুবাদ জানাই যারা এই উচ্চাভিলাষী প্রকল্পটিকে বাস্তবে পরিণত করেছেন, কারণ এটি কঠোর পরিশ্রম, নিষ্ঠা এবং দৃষ্টি দিয়ে কী অর্জন করা যেতে পারে তার প্রমাণ

FAQs: পদ্মা সেতুর খরচ কত টাকা সম্পর্কিত কিছু প্রশ্ন ও উত্তর।

  1. পদ্মা সেতুতে অর্থায়ন করেছে কোন দেশ?

    পদ্মা সেতু বিশ্বের বৃহত্তম সড়ক সেতু। এটি বাংলাদেশের পদ্মা নদী পর্যন্ত বিস্তৃত। সেতুটির মোট দৈর্ঘ্য 6.15 কিলোমিটার (3.81 মাইল)। এটি বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে এবং চায়না স্টেট কনস্ট্রাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং কর্পোরেশন (সিএসসিইসি) দ্বারা নির্মিত। ২০১৪ সালের ১৭ জুন পদ্মা সেতু নির্মাণের জন্য বাংলাদেশ সরকার ও চায়না মেজর ব্রিজ কোম্পানির মধ্যে আনুষ্ঠানিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। সর্বনিম্ন দরদাতা হিসেবে চীনের কোম্পানিটি পদ্মাসেতু নির্মাণের দায়িত্ব পায়। সেতুটি ২০২২ সালের ২৫ জুন উদ্বোধন করা হয়। এই দিন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাওয়া প্রান্ত দিয়ে টোল প্রদান করে প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিকভাবে পদ্মা সেতুতে আরোহণ করেন ও সেতুটি উদ্বোধন করেন।

  2. পদ্মা সেতুর খরচ কত?

    পদ্মা সেতুর ব্যয় করা হয়েছে ৩.৫ বিলিয়ন ডলার বা ৩০ হাজার ১৯৩ দশমিক ৩৯ কোটি টাকা। এসব খরচের মধ্যে রয়েছে সেতুর অবকাঠামো তৈরি, নদী শাসন, সংযোগ সড়ক, ভূমি অধিগ্রহণ, পুনর্বাসন ও পরিবেশ, বেতন ইত্যাদি। পদ্মা সেতুর মোট ব্যয়: ৩০,১৯৩.৩৯ কোটি টাকা।

  3. পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য কত?

    পদ্মা সেতু বিশ্বের দীর্ঘতম সেতু, যার মোট দৈর্ঘ্য প্রায় 6.15 কিলোমিটার (3.81 মাইল)। সেতুটির নির্মাণ কাজ 2014 সালে শুরু হয়েছিল এবং এটি 2022 সালে শেষ হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

  4. পদ্মা সেতু কোন জেলায় অবস্থিত?

    পদ্মা সেতু বাংলাদেশের শরীয়তপুর ও মাদারীপুর জেলার সাথে যুক্ত হয়েছে। এটি পদ্মা নদী পর্যন্ত বিস্তৃত। দেশের রাজধানী ঢাকার সাথে দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর বরিশাল সাথে সংযোগ স্থাপন করেছে।

  5. পদ্মা সেতুর অর্থনৈতিক গুরুত্ব কেমন?

    সেতুটি সম্পন্ন হলে বাংলাদেশের সমুদ্রে প্রবেশের উন্নতি হবে, যা নতুন বাণিজ্য ও বিনিয়োগের সুযোগ উন্মোচন করবে। সেতুটি দেশের মানুষের জন্য ভ্রমণকে আরও সহজ করবে, পর্যটনকে বাড়িয়ে তুলবে। পদ্মা সেতু নির্মাণ বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি বড় মাইলফলক। সেতুটি দেশের দুটি বৃহত্তম শহর, ঢাকা ও বরিশাল মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ পরিবহন সংযোগ হবে এবং ভ্রমণের সময় উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করবে এবং এই অঞ্চলে অর্থনৈতিক কার্যকলাপকে বাড়িয়ে তুলবে।

About the Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may also like these

Share via
Copy link