কিভাবে নিজেকে পরিবর্তন করা যায় | কি করবো জীবনে

কিভাবে নিজেকে পরিবর্তন করা যায়

প্রিয় পাঠক আজকের এই “কিভাবে নিজেকে পরিবর্তন করা যায়” নিবন্ধের মাধ্যমে কীভাবে নিজেকে পরিবর্তন করতে হয় তার বিশদ বিবরণ দেওয়ার জন্য আপনাদের নিকট তুলে ধরা হয়েছে। নিজেকে খুব ভালো এবং উচ্চ স্তরে প্রতিষ্ঠিত করতে নিজেকে ভেতর থেকে পরিবর্তন করা খুবই জরুরি। আর আজকের টপিকে অনেকেই কোরা প্লাটফর্মে প্রশ্ন করে থাকেন। তারা আমাদের এখান থেকে জেনে নিতে পারেন কিভাবে নিজেকে পরিবর্তন করা যায়।

আপনি হঠাৎ করে নিজেকে পরিবর্তন করার উপায় খুঁজে পাবেন না, তবে আপনি যদি চান তবে আপনি অন্তত ৬ মাস সময় নিয়ে নিজেকে পরিবর্তন করতে পারেন। আমরা কি আমাদের জীবন ৬ মাসে পরিবর্তন করতে পারি? হ্যাঁ! নিজেকে ধীরে ধীরে বদলাতে হবে এবং ধাপে ধাপে চ্যালেঞ্জ নিতে হবে। আজকে অনেক কিছু শেয়ার করব, কিভাবে নিজেকে পরিবর্তন করা যায় সেই সম্মন্ধে? তাই আপনারা ধৈর্য সহকারে আর্টিক্যালটি পড়ুন। আপনাদের সুবিধার্থে এখানে আপরা ভিডিও যুক্ত করে দিয়েছি।

রাতে ঘুমালাম আর সকাল উঠলাম তারপর বলবো আমি পরিবর্তন হয়ে গেছি এটা কি আসলে সম্ভব। না! যদি সত্যি নিজের পরিবর্তন চান তাহলে সবার আগে নিজেকে সময় দিতে হবে।লক্ষ্য করে দেখুন কি কি বিষয়ে উপর আপনি পরিবর্তন চান সে বিষয়টি খাতায় লেখা শুরু করুন। মনে রাখবেন হুট করে নিজেকে পরিবর্তন করা সম্ভব না ধীরে ধীরে নিজেকে পরিবর্তন করতে হয় সময়ের সাথে।

আগে আপনি নিজেকে প্রশ্ন করুন? আপনি কেন পরিবর্তন চাচ্ছেন আসলে কি আপনার পরিবর্তন প্রয়োজন?, নাকি কাউকে দেখানোর জন্য নিজেকে পরিবর্তন করতে চাচ্ছেন এটা আগে ভাবুন। যদি ভাবা শেষ হয় তাহলে শুরু করা যাক

সময়ের সাথে নিজেকে পরিবর্তন

আপনি কি হঠাৎ করে পরিবর্তন হতে পারবেন? সকালে ঘুম থেকে উঠলেন আর দেখলেন আপনি নিজেকে বদলে ফেলেছেন এমনটি কি সম্ভব? এমনটি কখনোই সম্ভব না। আপনি যদি নিজেকে ইতিবাচকভাবে পরিবর্তন করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে নিজেকে সময় দিতে হবে, নিজেকে নিয়ে ভাবতে হবে। আপনি যদি শুধুমাত্র মনে মনে পরিবর্তন হবেন তা ভাবেন, তাহলে কিন্তু আপনি কখনোই নিজেকে পরিবর্তন করতে পারবেন না।

কিভাবে নিজেকে পরিবর্তন করা যায়
কিভাবে নিজেকে পরিবর্তন করা যায়

আপনার জীবনের যদি অভ্যাসগত এবং আচরণগত পরিবর্তন গুলো আপনারা আনতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে একটি কাজ করতে হবে। সেটি হচ্ছে আপনারা অবশ্যই একটি খাতা ও কলম নিয়ে বসে পড়বেন। এরপর কাগজে-কলমে লক্ষ্যগুলো লিখবেন।

আপনার লেখা গুলো আপনি খুবই যত্ন করে রাখবেন এবং এগুলো একমাস পরে কিংবা 15 দিন পরে দেখুন যে আপনার মধ্যে আগে কি ছিল এখন কি পরিবর্তন হয়েছে। নিজের মধ্যে নিজের বোঝাপড়া বাড়লে জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন আনা সম্ভব হয়। এখন অনেকেরই প্রশ্ন থাকতে পারে আমরা কত দিনে পরিবর্তন হতে পারব? পরিবর্তন হওয়ার জন্য কোন দিন মাস কিংবা বছর এর প্রয়োজন হয় না। নিজের ইতিবাচক মতামত, নিজের সঙ্গে নিজের ভালো বোঝাপড়া, নিজেকে সঠিক পথে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া আপনাকে পরিবর্তন করে দেবে।

অভ্যাস পরিবর্তন করার উপায়

আপনি কোন কাজ প্রতিদিন করে থাকেন সেটি আগে মনে করুন। আমরা আগেই বলেছি, নিজেকে পরিবর্তনের কোনো নির্দিষ্ট সময় নেই। আপনি চাইলে ১০ থেকে ১৫ দিনের মধ্যে নিজেকে পরিবর্তন করতে পারেন অথবা পাঁচ বছরেও নিজেকে চেঞ্জ করে ফেলতে পারেন যদি আপনি চান।

এটা বলার কারণ হলো, অনেক মানুষ আছে যাদের মনে কোনো ইতিবাচক চিন্তা নেই। যাইহোক, আপনি প্রতিদিন কি পরিবর্তন করতে শুরু করেছেন তা একটি কাগজে লিখে রাখুন। সেই কাগজটি এমন জায়গায় রাখুন যেখানে আপনি এটিকে প্রতিদিন দেখতে পারেন। এই ধরনের একটি প্রজেক্ট হাতে নিলে আপনার মনে হবে এটা প্রতিদিন করতে হবে।

এখন কথা হচ্ছে হুট করে কাল থেকেই আপনারা সকালে ভোরে উঠতে পারবেন না। কেননা অনেকেরই অভ্যাস হয়ে গেছে দেরিতে ঘুম থেকে ওঠা। তাই আপনারা আগ্রহের মাধ্যমে ধীরে ধীরে তাড়াতাড়ি ওঠার চেষ্টা করবেন। এরপর সকালে ঘুম থেকে উঠে হালকা কিছু ব্যায়াম করতে পারেন। যার কারণে সারাদিন আপনার মাইন্ড সেটআপ ঠিক থাকবে।

আরও পড়ুনঃ  বিজয় দিবসের গুরুত্ব ২০২৩ | বিজয় দিবস কি ও কেন

নিজেকে পরিবর্তন করতে পুরো দিনকে সাজিয়ে নিন

আপনার জীবনে কিছু ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে হলে আপনার পুরো দিনটিকে খুব সুন্দর ভাবে সাজাতে হবে। আর সকলেই জানি আমাদের সাথে প্রতিদিনই প্রতিনিয়ত নানান ধরনের ঘটনা ঘটে। এসকল ঘটনাকে পিছনে ফেলে রেখে সামনে এগিয়ে যাওয়ার নামই হচ্ছে জীবন। আপনারা সকলেই যদি পরিবর্তন নিজের জীবনকে গড়তে চান তাহলে সারাটি দিন আপনাকে সাজিয়ে নেয়াটা অত্যন্ত জরুরী।

আপনি সারাদিন কি করবেন কি করছেন সবকিছুর পরিকল্পনা যদি আগে থেকেই করা থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন। এখন অনেক মানুষই নানান ধরনের ঝামেলায় পড়ে যান। যার কারণে পরিকল্পনাগুলো সঠিক থাকে না। যাইহোক যখন আপনাদের এসকল ঝামেলা গুলো কেটে যাবে ঠিক তখন থেকে আপনারা আবার পরিকল্পনা অনুসারে চলার চেষ্টা করবেন।

আপনি এগুলোও পড়তে পারেন>>>

  1. বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর টিকেট মূল্য | বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর টিকেট অনলাইন
  2. বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত পুরোটা ২৫ লাইন | বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত
  3. ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস আলোচনা | ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস
  4. বাংলাদেশের সবচেয়ে ছোট জেলা কোনটা | বাংলাদেশের সবচেয়ে ছোট জেলার নাম কি
  5. বাংলাদেশের সুন্দরবন সম্পর্কে ১০ টি বাক্য | সুন্দরবন সম্পর্কে ১০ টি বাক্য ইংরেজিতে
  6. নতুন বাস ভাড়ার তালিকা ২০২৩ | নতুন বাস ভাড়ার চার্ট

আশেপাশের ইতিবাচক মানুষদের খুঁজে বের করুন

নিজেকে চলার পথে একা একা প্রতিষ্ঠা করা অত্যন্ত কষ্টকর। আপনি যে কাজটি উদ্যোগ নেন না কেন আপনি একা যতটা না সফল হবেন কেউ যদি আপনার পাশে থাকে আপনি তখন তার চেয়ে বেশি সফলতা লাভ করবে। এখন আপনাদের করণীয় হচ্ছে এমন একজন মানুষ খুঁজে বের করা যায় ইতিবাচক চিন্তাভাবনা রয়েছে।

আশেপাশের ইতিবাচক মানুষদের খুঁজে বের করুন
আশেপাশের ইতিবাচক মানুষদের খুঁজে বের করুন

এবং আপনাকে সে সাহায্য করবে বলে আপনার মনে হয়। সব সময় মনে রাখবেন নেতিবাচক চিন্তা ভাবনা যারা করে থাকেন তাদের থেকে সবসময় দূরে থাকুন। অন্যথায় নিজেকে পরিবর্তন করা খুবই কষ্টকর হয়ে দাঁড়াবে আপনার জন্য।

সময়ের সঠিক ব্যবহার করে নিজের পরিবর্তন

আমাদের মধ্যে প্রায় সকলেই একটি কাজ আমরা খুব ভালো করে থাকে সেটি হচ্ছে সময়ের অপচয়। যে বিষয়টি তাদের আগ্রহ নেই আমরা সে বিষয়টি তেও সব সময় সময় নষ্ট করি। আমরা কেন এ কাজটি করে আপনার কি বলতে পারবেন?

আমি আপনাদেরকে বলে দিয়েছি কারণ বর্তমানের প্রযুক্তিগত দিক এতটাই মানুষের মনের মধ্যে বিস্তৃতি করেছে যে মানুষ যে কোনো নেতিবাচক জিনিস কেউ ইতিবাচক মনে করছে। যার কারনে নিজেদের আগ্রহ না থাকার সত্বেও তারা বিভিন্নভাবে নিজেদের সময়কে নষ্ট করছে। আপনার যেখানে কাজ করতে ভালো লাগে আপনি সেখানে নিজের সময়কে ব্যয় করুন।

আপনি যে কাজটি তে আগ্রহ রয়েছে অথবা আপনি যে কাজটি পারেন সে কাজে সময় ব্যয় করুন যাতে সে কাজটি আরও অগ্রসর করা যায়। নিজেকে পরিবর্তন করার অন্যতম একটি উপাদান হচ্ছে সময়ের সঠিক ব্যবহার। সময়কে কাজে লাগিয়ে নিজের ইচ্ছে মত সময় অপচয় করলে কখনো পরিবর্তন আসবে না।

নিজেকে ছাপিয়ে নতুন করে তোলার জন্য প্রতিদিন যদি আপনি এক ধাপ করেও ইতিবাচক চিন্তা ভাবনা নিজের মধ্যে ফুটিয়ে তুলতে পারেন। তাহলে দিন শেষে দেখা যাচ্ছে আপনি নিজেকে কয়েক মাসের মধ্যেই অসাধারণ একটি পরিবর্তন এনে দিতে পারবেন।

বিভিন্ন ভুল থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে নিজেকে পরিবর্তন

যে কোন মানুষ নিজের জীবনে কোনো না কোনো ভুল পদক্ষেপ নিয়ে থাকে। আগে যদি সে ভুল থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে আবার ফিরে আসতে পারেন তাহলে আপনি নিজেকে পরিবর্তন করতে। আর যদি আপনি সেই ভুলের মধ্যে ডুবে যান তাহলে কখনোই আপনি শিক্ষা গ্রহণ করতে পারবেন না।

আবার অনেকের মনের মধ্যেই এমন চিন্তাভাবনা রয়েছে যে আমার চেয়ে হয়ত বা তারা অনেকটা উন্নত মানের অথবা বড়। একটি কথা মনে রাখবেন নিজেকে কখনো ছোট ভাবা যাবে না। আবার এমনটিও ভাবলে চলবে না যে আমি খুব বড় আমার থেকে সবাই ছোট। বয়সের ক্ষেত্রে ছোট বড় সকলের থেকেই শিক্ষা গ্রহণ করা সম্ভব। পুরনো জিনিস কে নতুন করে শেখার মাধ্যমে নিজেকে ইতিবাচক কাজে ব্যস্ত রাখুন তাহলে নিজে পরিবর্তন আনা সম্ভব। যারা “মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম” করতে চান তারা এখান থেকে এপস ডাউনলোড করে কাজ করুন।

কিভাবে নিজেকে পরিবর্তন করা যায়

  1. সবার আগে সময় অপচয় করা বন্ধ করতে হবে।
  2. যদি সোশ্যাল মিডিয়ায়তে আসক্ত হোন এটা থেকে বাহির হতে হবে। আসক্ত ও না হলে সোশ্যাল মিডিয়ায় তে সময় দেওয়া বন্ধ করতে হবে।ধরুন আপনি প্রতিদিন ৫-৬ ঘন্টা মতো মোবাইল ব্যবহার করেন এটাকে আপনার ছাড়তে হবে, প্রয়োজন ছাড়া মোবাইল ব্যবহার করবেন না।
  3. প্রতিদিনের জন্য একটা রুটিন তৈরি করুন। কখন ঘুম থেকে উঠবেন , কখন খাবার খাবেন একটা রুটিন ফলো করুন।মনে রাখবেন রুটিন যেন পরিবর্তন না হয়।
  4. তাড়াতাড়ি ঘুমাতে হবে ১০.৩০-১১.৩০ P.M সকালে তাড়াতাড়ি উঠতে হবে সকাল ৫.০০-৬.০০ A.M। সকালে মন ফ্রেশ থাকে তাই তাড়াতাড়ি উঠতে হবে। মজার বিষয় হলো সকালে ঘুম থেকে উঠলে আরও অনেক কিছু উপকারীতা আছে। প্রথম অবস্থায় সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠতে পারবেন না। আস্তে আস্তে এটাকে অভ্যাসে পরিনত করতে হবে। উপরে কলামে কি করে সকালে ঘুম থেকে উঠবেন এই বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে তাই এখানে আলোচনা করা হচ্ছে না।
  5. সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরে কী কী করবেন, তা ঠিক করুন। হালকা ব্যায়াম করতে পারেন। বই পড়তে পারেন ৩০ মিনিট মতো। ১০-১৫ মিনিট হাটতে পারেন।
  6. নিজেকে কিভাবে পরিবর্তন করব বা করতে চাচ্ছেন। সেটার উপর কাজ করুন। আপনার গোলের উপর বিশেষ ভাবে কাজ করুন।
  7. প্রতিদিন নিজেকে মোটিভেট করুন, রাতারাতি সফল হবেন না। নিজেকে তৈরি করুন যে চ্যালেঞ্জ নেওয়ার জন্য।
  8. কোন কিছু পরিবর্তন আনতে হলে ২১ দিনের চেলেঞ্জ নিন, তার পর ৯০ দিনের চেলেঞ্জ নিন।
  9. নিজের পরিকল্পনা তৈরি করুন, সে পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করুন প্রতিদিনের গোল, সপ্তাহের গোল, মাসিক গোল, ছয় মাসের গোল তার পর এক বছরের গোল। এই গোলের ওপর কাজ করুন আগামী ৫ বছরে আপনি লক্ষ কোথায় দাড়াতে চাচ্ছেন সেটা ঠিক করুন।
  10. নিজেকে কারও সাথে তুলনা করবেন না, শুধু এইটুকু নিজেকে বলবেন সবই আমার দ্বারা করা সম্ভব, আমি কেন পারবো না।
  11. দায়িত্ব নিতে শিখুন।
  12. মানুষের সাথে সর্বদা ভালো আচারণ করুন। ভালো ভাবে কথা বলুন।
  13. যখন রেগে যাবেন কাউকে কুটুর কথা বলবেন না, নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করুন।
  14. হাল ছেড়ে দিয়েন না, হতাশ হবে না। নিজেকে সবসময় বলুন আমি এটা করতে পারবো।
  15. বই পড়ুন প্রতিদিন ১ ঘন্টা করে। রাতে ঘুমানোর আগে ৩০ মিনিট বই পড়ুন। সকালে ঘুম থেকে ওঠে ৩০ মিনিট বই পড়ুন।
  16. প্রতিদিনের ডাইরি তৈরি করুন, কি করতেছেন সব ডাইরি তে লিখে রাখুন। অন্তত প্রতিসপ্তাহে এটাকে এনালাইস করুন, যাতে এই সপ্তাহে যা করেছেন তা আগামী সপ্তাহে আরও ভালো করতে চেষ্টা করুন।
  17. সময়ে সাথে চলুন, নিয়তির সাথে বোঝাপড়া করবেন না, যা হয়সে তা হয়সে।
  18. নিজের ইমোশন কে কন্টোল করুন, নিজের ইমোশন কে কন্টোল করতে না পারলে সব শেষ।
  19. হ্যা বলা বন্ধ করুন, সবসময় হা বলবেন না, না বলতে শিখুন।
  20. প্রতিদিন ৫ ওয়াক্ত নামাজ পড়ুন মুসলিম হলে, আল কুরআন পড়ুন।
  21. ভুল করলে সরি বলুন। রাতে ঘুমানোর আগে ক্ষমা করে দিন যা যা ঘটেছে তা নিয়ে।
  22. অন্যর থেকে বেশি জানুন, কাউকে নিজের সাথে তুলনা করবেন না। সবসময় নিজেকে এটা বলুন I am Best.
  23. ইউটিউব বেশি সময় অপচয় করবেন না, ইউটিউব ব্যবহার করা ভালো, তবে ইউটিউবে সময় লস করা ভালো না। ফানি ভিডিও দেখবেন না, ইমোশনাল ভিডিও ও দেখবেন না, আপনার কাজ রিলেটেড ভিডিও দেখুন।
  24. নিজের গল্প নিজে তৈরি করুন, আপনার গল্প পড়ে যেন মানুষ জীবন পরিবর্তন করার গল্প হয় মতো। অন্যর গল্প থেকে শুধু শিক্ষা গ্রহণ করুন। আমি বলবো যারা অসফল তাদের সাথে কথা বলতে কারণ তারা কেন অসফল তাদের থেকে শিক্ষা নিয়ে নিজের জীবনে কাজে লাগান।কখনো হাল ছাড়বেন না।
  25. নতুন নতুন কিছু শিখতে চেষ্টা করুন। Never Stop Learning. প্রতিদিন নিজের শেখার পরিবেশে তৈরি করুন।নিজের ভুল থেকে শেখার চেষ্টা করুন।
  26. ভালো কাজের জন্য উৎসাহ দিন অন্য কে।
  27. বাস্তবতা কে মেনে নিন।
আরও পড়ুনঃ  বাংলাদেশের সবচেয়ে ছোট জেলা কোনটা | বাংলাদেশের সবচেয়ে ছোট জেলার নাম কি

আবেগ নিয়ন্ত্রণ করার উপায়?

আবেগ এক ধরনের অনুভূতি। এর মধ্যে আছে ভালোবাসা, ঘৃণা, সুখ, দুঃখ, দুশ্চিন্তা, রাগ, বিশ্বাস, ভয় ইত্যাদি । কারো সামনে আবেগ প্রকাশ করার মানে হলো যার সামনে আপনি আবেগ প্রকাশ করবেন সে মানুষের সামনে নিজেকে ধ্বংস করে দেয়া। আবেগ নিয়ন্ত্রণ করার দরকার নাই, ওটা এমনিতেই আপনার কন্ট্রোলে চলে আসবে।

নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করার উপায়?

নিজের মন কে নিয়ন্ত্রণ করা সবচেয়ে কষ্টকর মানসিক চাপ, কাজের চাপ, সম্পর্কের চড়াই-উতরাই ইত্যাদি কখনো কখনো মনকে বিক্ষিপ্ত করে দেয়।ব্যায়াম করুনঃ ব্যায়াম ‍নিজের মনকে শান্ত করে ব্যায়ামের মাধ্যামে নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করে নিন নিজেকে তরতাজা করে নিন।

বিভিন্ন ভুল থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে নিজেকে পরিবর্তন
বিভিন্ন ভুল থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে নিজেকে পরিবর্তন

নিজেকে পরিবর্তন করার স্ট্যাটাস

পরিবর্তন নিয়ে কয়েকটি উক্তি উল্লেখ করলাম আমাদের এই পোষ্টে যা আপনার জ্ঞান কে বাড়িয়ে দিবে আরো অনেকগুন। কারণ মনিষীদের উক্তি সব সময় অনেক মূল্যবান হয়। আর তাই আমাদের এই পোস্টে আমরা কিছু মূল্যবান বাণী দিয়েছি। তবে চলুন তাহলে দেখে নেই সেই বিখ্যাত বাণীগুলো। আশাকরি পরিবর্তন বা পাল্টে যাওয়া নিয়ে স্ট্যাটাস গুলো পড়ে খুব ভালো লাগবে।

  • পুরুষের সবচেয়ে ভালো এবং বোকামীর দিক হলো সে কোনোদিন পরিবর্তন হয় না। – কনফুসিয়াস
  • গতকাল আমি চালাক ছিলাম তাই পুরো পৃথিবীটাকে পরিবর্তন করতে চেয়েছিলাম। আজ আমি জ্ঞানী তাই নিজেকে পরিবর্তন করছি। – রুমি
  • নিজেকে এমনভাবে পরিবর্তন করো যাতে সবাই তোমার পুরাতন তুমিটাকে ফিরি পেতে চায়। – সংগৃহীত
  • জীবনের একমাত্র ধ্রুবক হলো পরিবর্তন যা কখনো পরিবর্তন হয় না। – হেরাক্লিতোস
  • পৃথিবীতে যে পরিবর্তন দেখতে চাও, আগে নিজের মধ্যে তা নিয়ে আসো। – মহাত্মা গান্ধী
  • জীবন অবশ্যই পরিবর্তনকে মেনে নিতে হবে তবে তা হতে হবে নিয়ম হিসাবে তোমার জীবনের নিয়ন্ত্রক হিসাবে নয়। – ডেনিস উইটলি
  • আপনি এমন কাউকে পাল্টাতে পারবেন না, যে তার আচরণে ভুলগুলো দেখতে পায় না । – সংগৃহীত
  • পরিবর্তন অবশ্যই অনেক বেদনাদায়ক তবে তার চেয়েও বেশি বেদনাদায়ক এমন কারোর সাথে থাকা যেখানে তুমি কোনদিন ছিলেই না। – ম্যান্ডি হেল
  • কিছু পছন্দ না হলে তা পরিবর্তন করে ফেলো। আর তা না পারলে জিনিসটা সম্পর্কে তোমার ধারণা পরিবর্তন করো। – ম্যারি এংগেলবেরিইট
  • জীবন তখনই পূর্ণতা পায় যখন ছোট ছোট পরিবর্তন শুরু হয়। – লিও টলস্টয়
  • হৃদয়ের মনোভাবের কিছুটা পরিবর্তন সব কিছুকে পরিবর্তন করে ফেলতে পারে। – টোড স্টকার
  • কিছু পরিবর্তন না করলে কিছুই পরিবর্তন হবে না। – টনি রবিনস
  • যখন তুমি সংশয় এর ভিতর থাকো তখন তা পরিবর্তন করে ফেলো। – লিলি লিয়ুং
  • নতুন শুরু এবং পরিবর্তন এর জন্য সঠিক সময় হলো আজ। – সংগৃহীত
  • পরিবর্তনই পারে তোমার জন্য সুযোগ বয়ে আনতে, তাই একে আলিংগন করে নাও। – নিডো কুবেইন
  • সবকিছু পরিবর্তন হবে। কোনো কিছুই আজকের মতো থাকবে না। তাই তৈরি করো নিজেকে। – সংগৃহীত
  • পরিবর্তন ব্যতীত কোনো কিছুই চিরস্থায়ী নয়। – সংগৃহীত
আরও পড়ুনঃ  Titi Monkey Facts: বাবার কোলে বড় হয় টিটি বানরের বাচ্চারা, জানুন এখানে

শেষ কথাঃ

নিজেকে চেনা খুব কঠিন। আপনি যদি নিজেকে জানতে চান তবে আপনার সমস্ত ভাল এবং খারাপ পয়েন্টগুলি একটি নোটবুকে লিখুন। নিজেকে অনেক বদলাতে হবে। এর পরে আপনি নিজেকে জানতে শিখবেন। নিজেকে পরিবর্তন করা কঠিন কিন্তু অসম্ভব কিছু না।

নিজেকে পরিবর্তন করতে, প্রথমে ফোকাস করে সময় নষ্ট করা বন্ধ করুন। সময়ের মূল্য অপরিসীম। সময় চলে গেলে আর ফিরে পাওয়া যায় না। আপনি কি পরিবর্তন করতে চান তার উপর ফোকাস করার জন্য নিজেকে আরও সময় দিন। নিজেকে চ্যালেঞ্জ করুন আপনার লক্ষ্য নির্ধারণ করুন। আর এই ব্লগটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন যাতে তারাও এটি পড়তে পারে এবং নিজেকে পরিবর্তন করতে পারে এছাড়া নিজেকে চ্যালেঞ্জ করতে শিখুন।

প্রিয় পাঠক, নিবন্ধটি আপনাকে কিভাবে নিজেকে পরিবর্তন করা যায় তার বিশদ বিবরণ দেওয়ার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। যদি সবাই উপরে উল্লেখিত বিষয়গুলো সঠিকভাবে অনুসরণ করেন তাহলে আপনি খুব সহজেই নিজেকে পরিবর্তন করতে পারবেন। নিজেকে বদলানো খুবই জরুরি।

কারণ সমাজ কখনোই আপনাকে মেনে নেবে না যেভাবে আপনি আছেন সেভাবে। নিজেকে পরিবর্তন করা এবং একটি আধুনিক পরিকল্পনা তৈরি করা বর্তমানে সমাজে সাধারণ। আশা করি আপনি আজকের নিবন্ধটি উপভোগ করেছেন এবং নিজেকে পরিবর্তন করার একটি নতুন উপায় শিখেছেন।

যাইহোক, আপনার যদি এই সম্পর্কে কোন প্রশ্ন বা মতামত থাকে, তাহলে অবশ্যই মন্তব্যের মাধ্যমে আমাদের জানান।

আপনি এগুলোও পড়তে পারেন>>>

  1. বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর টিকেট মূল্য | বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর টিকেট অনলাইন
  2. বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত পুরোটা ২৫ লাইন | বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত
  3. ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস আলোচনা | ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস
  4. বাংলাদেশের সবচেয়ে ছোট জেলা কোনটা | বাংলাদেশের সবচেয়ে ছোট জেলার নাম কি
  5. বাংলাদেশের সুন্দরবন সম্পর্কে ১০ টি বাক্য | সুন্দরবন সম্পর্কে ১০ টি বাক্য ইংরেজিতে
  6. নতুন বাস ভাড়ার তালিকা ২০২৩ | নতুন বাস ভাড়ার চার্ট

FAQs:

No schema found.

About the Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may also like these

Share via
Copy link