জেনে বুঝে Meta লক্ষ লক্ষ শিশুকে Sing Up করিয়েছে, মামলা খেলো Meta Company!

মামলা খেলো Meta Company

Meta Company: যুক্তরাষ্ট্রের ৩৩টি অঙ্গ রাজ্য Facebook এর মূল কোম্পানি Meta এর বিরুদ্ধে মামলা করেছে। তাদের অভিযোগ, ‘১০লক্ষেরও বেশি শিশু User দের Account নিয়ে অভিযোগ করলেউ মেটা ছোট একটি অংশ নিষ্ক্রিয় করেছে‘।

মামলার কাগজ-পত্র অনুসারে ২০১৯ থেকে এই ঘটনার শুরু হয়। মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে যে টেক জায়ান্ট মেটার প্ল্যাটফর্মে ১৩ বছরের কম বয়সী লক্ষ লক্ষ ব্যবহারকারী রয়েছে যা “ওপেন সিক্রেট” এবং ইনস্টাগ্রাম নিয়মিতভাবে পিতামাতার অনুমতি ছাড়াই অপ্রাপ্তবয়স্ক ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করে যাচ্ছে।

কোম্পানির অভ্যন্তরে অনেকেই এই অপ্রাপ্তবয়স্ক ব্যবহারকারীদের সম্পর্কে সচেতন ছিলেন এবং কোম্পানি নিশ্চিত করেছে যে তথ্য নিয়মিতভাবে নথিভুক্ত করা হয়েছে এবং কঠোরভাবে বিশ্লেষণ করা হয়েছে। এছাড়া সর্বোচ্চ সতর্কতার সাথে সেগুলি প্রকাশ্যে আসা থেকে বিরত রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ  দেশব্যাপী আবারও হরতাল, হরতালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কী বন্ধ হবে?

Meta Company এর উপর মামলা!

নিউইয়র্কের অ্যাটর্নি জেনারেল লেটিসিয়া জেমস সহ ৩৩টি মার্কিন রাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেলরা অভিযোগ করেছেন যে শিশু এবং কিশোর-কিশোরীদের মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক বেশ কয়েকটি বৈশিষ্ট্য (Feature) তৈরি করেছে।

তারা অভিযোগে বলে Meta তরুন-তরুনীদের লক্ষ করে এমন এমন Features তৈরি করেছে যে আসক্তিমূলক এবং Psychological manipulation-র জন্য দায়ী।

“মেটা তাদের প্ল্যাটফর্মে ইচ্ছাকৃতভাবে ম্যানিপুলটিভ বৈশিষ্ট্য তৈরি করে শিশুদের ভোগান্তি থেকে লাভবান হচ্ছে।” – বলেছেন নিউইয়র্কের অ্যাটর্নি জেনারেল লেটিসিয়া জেমস (Leticia James)।

অভিযোগের প্রতিক্রিয়ায়, একজন মেটা মুখপাত্র বলেছেন, “আমরা অবাক হয়েছি যে, তরুণদের জন্য সঠিক মানের অ্যাপ তৈরিতে বিভিন্ন কোম্পানির সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করার পরিবর্তে অ্যাটর্নি জেনারেলরা এই রাস্তাটি বেছে নিলেন।

আরও পড়ুনঃ  নভেম্বর মাসেই শেষ করতে হবে বার্ষিক পরীক্ষা, জানালো শিক্ষামন্ত্রণালয়! কিন্তু কেনো?

যাইহোক, রাজ্যগুলির দ্বারা জমা দেওয়া প্রমাণের একটি বড় অংশ জনসাধারণের কাছে উন্মুক্ত করা হয়নাই।

কোম্পানির ‘অভ্যন্তরীণ রিপোর্টিং চ্যানেল’-এর মাধ্যমে বিস্তারিত জানানো সত্ত্বেও, টেক জায়ান্টটি ১৩ বছরের কম বয়সী ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে অভিযোগ উপেক্ষা করে এবং তাদের প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার চালিয়ে যাওয়ার অনুমতি দেয়।” – এই কথাটি মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।

জবাবে, মেটা বলে, এই ধরনের নির্বাচিত উদ্ধৃতি এবং বিশেষভাবে নির্বাচিত নথিগুলি জনসাধারণের কাছে প্রকাশ করে তাদের কার্যকলাপকে ভুলভাবে উপস্থাপন করছে।

সংস্থাটি বলেছে যে ব্যবহারকারীদের বয়স যাচাই করা একটি “জটিল সমস্যা“, বিশেষ করে তরুণ ব্যবহারকারীদের জন্য যাদের আইডি বা লাইসেন্স নেই।

প্রিয় পাঠক, আপনাদের মতামত কি? মেটা যা করছে তা সঠিক? উত্তরটি কমেন্টবক্সে জানাবেন। এছাড়া ট্রেন্ডিং নিউজগুলি সবার আগে পেতে আমাদের Whatsapp গ্রুপে যুক্ত থাকুন। Home Page এ ঘুরে আসুন।

আরও পড়ুনঃ  Cloud Theft: ব্যতিক্রমী এক চুরির অভিযোগ, কি সেই ঘটনা জানুন

About the Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may also like these

Share via
Copy link