নতুন গাড়ি কিনেছেন, তবে জেনে নিন কিভাবে গাড়ির যত্ন নেবেন

কিভাবে গাড়ির যত্ন নেবেন

কিভাবে গাড়ির যত্ন নেবেনঃ অনেকেই নতুন গাড়ি কেনার পর তার সঠিক যত্ন নেন না। ফলে অল্প সময়ে গাড়ির বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। নতুন গাড়ি কেনার পর খেয়াল রাখতে হবে যাতে দীর্ঘ সময় গাড়িটিকে ভালো দেখা যায় ও ভালো রাখা যায়।

দেখে নিন নতুন কিভাবে গাড়ির যত্ন নেবেনঃ

গাড়ির টায়ারের চাপ পরীক্ষা করুন নিয়মিত

গাড়ির প্রধান উপাদান হল গাড়ির টায়ার। এটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদানগুলির মধ্যে একটি হওয়া সত্ত্বেও, টায়ারগুলি একটি গাড়ির সবচেয়ে অবহেলিত অংশগুলির মধ্যে একটি। কিন্তু এই অবহেলা অকালে টায়ার ফেটে যেতে পারে অথবা টায়ারের আয়ু কমিয়ে দিতে পারে।

আরও পড়ুনঃ  Spam SMS: ফোন স্প্যাম মেসেজে ভরে যাচ্ছে? Block করুন এখনি!

তাই টায়ারে বাতাস অথবা নাইট্রোজেনের প্রস্তাবিত পরিমাণ রাখা সবসময় গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। স্থানীয় গ্যারেজ বা পেট্রোল পাম্পে এয়ার রিফিলিং মেশিন থাকলেও, অনলাইনে পোর্টেবল এয়ার পাম্প কিনে তারপর সেটিও ব্যবহার করতে পারেন।

পর্যায়ক্রমে ইঞ্জিনের তেল পরিবর্তন করুন

ইঞ্জিনের তেল পরিবর্তন করুন
ইঞ্জিনের তেল পরিবর্তন করুন

যানবাহনের একাধিক ছোট-বড় চলমান যন্ত্রাংশ রয়েছে। এই মেশিনগুলি যাতে মসৃণভাবে চলতে পারে তা নিশ্চিত করার জন্য তেল অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। পাওয়ারট্রেনের অভ্যন্তরে গুরুত্বপূর্ণ অংশগুলির মসৃণ কার্যকারিতা নিশ্চিত করার জন্য, ইঞ্জিন তেল পর্যায়ক্রমে পরিবর্তন করা হয় তা নিশ্চিত করা গুরুত্বপূর্ণ।

প্রতি 10,000-কিমি দৌড়ের পরে বা বছরে একবার ইঞ্জিন তেল প্রতিস্থাপনের প্রয়োজন পড়ে।

ব্যাটারির রক্ষণাবেক্ষণ করুন

ব্যাটারির রক্ষণাবেক্ষণ
ব্যাটারির রক্ষণাবেক্ষণ

ব্যাটারি গাড়ির আরেকটি মূল উপাদান, যা অনেক কিছুকে শক্তি দেয়। তাই গাড়ির ব্যাটারির যত্ন নিন। ব্যাটারি নিয়মিত পরিষ্কার করলে এর আয়ু বাড়াতে সাহায্য করে। এছাড়াও ব্যাটারি টার্মিনালগুলিকে মরিচামুক্ত রাখতে এবং মসৃণ কার্যকারিতা বজায় রাখতে সহায়তা করে। এতে গাড়িতে পাওয়ার ভালো পায়।

আরও পড়ুনঃ  মোবাইল রিসেট করার নিয়ম, কিভাবে মোবাইল রিসেট দিব - আসুন জেনে নেই।

নিয়মিত গাড়ির পরিষ্কার করুন

ঘন ঘন গাড়ী ধোয়ার জন্য অর্থ ব্যয় করার দরকার নেই। বাড়িতে মাইক্রোফাইবার কাপড় ব্যবহার করে গাড়ি পরিষ্কার রাখা যায়। সাধারণ ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ব্যবহার করে গাড়ির ভিতরের অংশ পরিষ্কার করাও সহজ।

যদিও বাহ্যিক পরিচ্ছন্নতা গাড়িটিকে চকচকে এবং উপস্থাপনযোগ্য রাখতে সাহায্য করে। আর গাড়ির পেইন্টকে দীর্ঘ সময়ের জন্য ভালো অবস্থায় রাখতেও সাহায্য করে। অন্যদিকে গাড়ির ভিতরের অংশ পরিষ্কার রাখলে কেবিন হবে ধুলোবালিমুক্ত। যা শুধু স্বাস্থ্যকরই নয় যাত্রীর আস্থাও বাড়ায়।

কেবিন এয়ার ফিল্টার প্রতিস্থাপন করুন

একটি গাড়ির সর্বাধিক ব্যবহৃত ফাংশনগুলির মধ্যে একটি হল এয়ার কন্ডিশনার সিস্টেম। একটি গাড়ির কেবিন এয়ার ফিল্টার কেবিনের অভ্যন্তরে পরিষ্কার বায়ু প্রবাহ এবং সঠিক শীতলতা নিশ্চিত করে। প্রতি ছয় মাস অন্তর গাড়ির কেবিন এয়ার ফিল্টার পরিবর্তন করুন। এতে গাড়ির আয়ু আরো বাড়বে।

আরও পড়ুনঃ  এক ক্লিকেই Delete করুন অপ্রয়োজনীয় G-Mail, কিভাবে করবেন জানুন।

আজকের টিপসগুলি কেমন লাগলো তা আমাদের জানাবেন কমেন্টে। এছাড়া এমন সব তথ্য জানতে আমাদের সাথেই থাকুন। অন্যান্য খবর পড়তে মূলপাতা ভিজিট করুন।

About the Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may also like these

Share via
Copy link