পুরাতন আইফোন কেনার আগে জেনে নিন বিস্তারিত | কম দামে আইফোন

পুরাতন আইফোন কেনার আগে জেনে নিন বিস্তারিত

সহবাংলা আইটিএর আজকের এই পুরাতন আইফোন কেনার আগে জেনে নিন বিস্তারিত পোষ্টে স্বাগতম আপনাদের। আপনারা অনেকেই আইফোন লাভার আছেন। অনেকে কষ্ট করে টাকা জমিয়ে পুরাতন আইফোন কিনতে চান। কিন্তু পুরাতন আইফোন কেনার আগে সে সম্মন্ধে বিস্তারিত জানা আপনার জন্য অত্যন্ত প্রয়োজন। তাই আমাদের আজকের আয়োজন এই পোষ্ট। এই পোষ্ট পড়ে ভালো লাগলে আমাদের ওয়েবসাইটটি সাবস্ক্রাইব করবেন এবং শেয়ার করবেন।

আধুনিক প্রযুক্তির যুগে তুমুল জনপ্রিয় ডিভাইস হলো আইফোন। আইফোন নিজের প্রযুক্তি ভিত্তিক উন্নতির দ্বারা স্মার্টফোনের বাজারে আধিপত্য বিস্তার লাভ করে ফেলেছে। এই আইফোন যেমন প্রতিনিয়ত ব্যবহারকারীকে বিস্তর সুবিধা প্রদান করছে তেমনি আইফোনের দামও বৃদ্ধি পাচ্ছে। মধ্যবিত্ত মানুষদের জন্য আইফোন নাগালের বাইরে বলা যায়। সেজন্য বর্তমান সময়ে অনেকে ব্যবহৃত আইফোন ক্রয় করে থাকেন। এতে করে তারা কিছু অর্থ সাশ্রয় করতে পারেন।

পুরাতন আইফোন কেনার আগে জেনে নিন বিস্তারিত  

বন্ধুরা, পুরাতন ইউসড আইফোনের কিছু সুবিধা ও অসুবিধা রয়েছে। চলুন এই সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেই নিচের বিস্তারিত আলোচনা থেকে।

পুরাতন আইফোন কেনার আগে জেনে নিন বিস্তারিত
পুরাতন আইফোন কেনার আগে জেনে নিন বিস্তারিত

সেকেন্ডহ্যান্ড আইফোনের সুবিধা  

পুরাতন আইফোন থেকে নতুন আইফোন এর মূল্য ভালোই পার্থক্য দেখা যায় বাজারে। অল্প কয়েকদিন ব্যবহার করা সত্ত্বেও ফোনের দাম মডেল ভেদে প্রায় ১০-১৫ হাজার পর্যন্ত কমে যায়। তবে পুরানো আইফোন কেনার ক্ষেত্রেও কোত্থেকে থেকে ফোন ক্রয় করা হচ্ছে সেই বিষয়টি মনে রাখতে হবে। কেননা অ্যাপল এর অফিশিয়াল শপ থেকে রিফার্বিশড আইফোন এর মূল্য থার্ড পার্টি মাধ্যম থেকে বেশি মূল্যের হতে পারে।

আরও পড়ুনঃ  নির্বাচন নিয়ে ছড়ানো গুজব প্রতিরোধ করবে Tiktok, জেনে নিন কিভাবে

অ্যাপল ফোনের একটি নতুন মডেল লঞ্চ করার সাথে সাথে এটি তার কিছু পুরানো মডেল বিক্রি বন্ধ করে দেয়। ফলস্বরূপ, আপনি যদি একটি পুরানো মডেলের আইফোন কিনতে চান তবে একটি ব্যবহৃত ফোন আপনার একমাত্র ভরসা। উদাহরণস্বরূপ, বর্তমানে অ্যাপলের অফিসিয়াল শপ থেকে iPhone 11 পাওয়া যাচ্ছে না। কিন্তু iPhone 11 এখনও বর্তমান বাজারের অন্যতম সেরা ফোন হিসেবে বিবেচিত হয়। পুরানো আইফোন কেনার আরেকটি সুবিধা হল এই ফোনগুলির অর্থের মূল্য দীর্ঘ সময়ের জন্য একই থাকে। নতুন মডেল বাজারে এলে এই ফোনের দাম কমে গেলেও তার পর এসব ফোনের দাম খুব একটা কমেনি। এসব দিক থেকে পুরনো আইফোন কেনাকে লাভজনক বলা যায়।

পুরাতন আইফোনের অসুবিধা 

যদিও পুরাতন আইফোনের কিছু সুবিধা আছে তবে তার মানে এই না যে এর কোন অসুবিধা নেই। পুরাতন আইফোনের ক্ষেত্রে ও কিছু জিনিস মাথায় রেখে পুরাতন আইফোন কেনার ব্যাপারে চিন্তা করতে হয়। পুরাতন আইফোন ক্রয় এর ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় যে সমস্যাটি থাকে সেটি হচ্ছে এর ওয়ারেন্টি। যেহেতু পুরাতন আইফোন কিছু সময় ব্যবহার করা হয়েছে তাই অ্যাপল থেকে প্রদানকৃত ওয়ারেন্টি শেষ হয়ে যেতে পারে। তবে অ্যাপল থেকে রিফার্বিশড ফোন ক্রয় করলে এক বছরের ওয়ারেন্টি পাওয়া যাবে।

এছাড়া নতুন আইফোন ক্রয়ের ক্ষেত্রে ইচ্ছামত মডেল, কালার এবং মেমোরি অপশন নির্বাচন করে ফোন ক্রয় করা যায়। কিন্তু পুরাতন ব্যবহৃত আইফোনের ক্ষেত্রে বাজারে যেই মডেলটি পাওয়া যাবে শুধুমাত্র সেই মডেলটি কেনা সম্ভব। এই ক্ষেত্রে আপনার পছন্দ মত ফোন খুজে পেতে একটু সময় খরচ করতে হবে।

আরও পড়ুনঃ  ফেসবুকে লাইক-কমেন্ট করছেন না কারা - দেখে নিন এখনি

এগুলি পড়ুন>> 

এছাড়া পুরাতন আইফোন ক্রয়ের ক্ষেত্রে অনেক সময় ফোনের সাথে থাকা এক্সেসরিজ পাওয়া যেতে নাও পারে। সে ক্ষেত্রে আপনাকে আলাদা করে এ সকল এক্সেসরিজ গুলো কিনতে হবে। থার্ড পার্টি এক্সেসরিজ ব্যবহার করা অনেক সময় আইফোনের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ। তাই এক্সেসরিজ কেনার সময় অবশ্যই অফিশিয়ালগুলো কেনা উচিত।

অ্যাপল সাধারণত তাদের আইফোনগুলিতে পাঁচ থেকে ছয় বছরের জন্য সফটওয়্যার আপডেটের সুবিধা দিয়ে থাকে। আপনি যদি দুই, তিন অথবা চার বছর পুরনো ফোন ক্রয় করে থাকেন তাহলে আপনার সফটওয়্যার আপডেটের সুবিধা কম সময়ের জন্য পাবেন। সেক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সময়ের জন্য আইফোন সিকিউরিটি আপডেট পাওয়া সম্ভব হবে না। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আইওএস ১৭ আপডেট আইফোন টেন এর জন্য পাওয়া যাবেনা।

কম দামে আইফোন
কম দামে আইফোন

পুরাতন আইফোন কেনা কি উচিত?  

এই প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেওয়া সত্যিই সম্ভব নয়, আসলে এটি ব্যবহারকারীর উপর নির্ভর করবে। পুরানো আইফোনের সুবিধা এবং অসুবিধা উভয়ই রয়েছে। ব্যবহারকারীকে প্রথমে শনাক্ত করতে হবে যে এটি একটি পুরানো আইফোন বা একটি নতুন আইফোন কোনটি কিনলে তার জন্য সুবিধা হবে।

আমার শেষ সিদ্ধান্ত, 

যদি আপনার খুব সীমিত বাজেট থাকে তবে ব্যবহৃত আইফোন কেনা অবশ্যই একটি ভাল সিদ্ধান্ত। তবে সেক্ষেত্রে পুরনো আইফোন না কেনাই ভালো কারণ সেখানে আপনি কম সফটওয়্যার আপডেট পাবেন। এছাড়াও, পুরানো আইফোন কেনার সময় ওয়ারেন্টি সহ একটি আইফোন কেনা ভাল হবে। তাছাড়া আইফোনের মালিকানা নিশ্চিত করতে হবে যাতে কেনার পর কোনো সমস্যা না হয়। আইফোন সম্পর্কে আপনার এই নিবন্ধটি কেমন লেগেছে তা মন্তব্য করতে ভুলবেন না এবং আমাদের জানান।

আরও পড়ুনঃ  কম্পিউটারের প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার | Required Software For PC

TAG: কম দামে আইফোন,আইফোন ১৪,আইফোন ১৩,আইফোন ১১ এর দাম কত,আইফোন 8 প্লাস বাংলাদেশ প্রাইস,আইফোন 4 এর দাম কত,আইফোন 6 দাম কত,আইফোন এক্স বাংলাদেশ প্রাইস,আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স প্রাইস ইন বাংলাদেশ,আইফোন 7 দাম কত,আইফোন 7 প্লাস,আইফোন 12 প্র মেক্স,আইফোন 13 প্রো ম্যাক্স,আইফোনের দাম কত,আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স,আইফোন 5 এর দাম কত,আইফোন 7 বাংলাদেশ প্রাইস,আইফোন 6 প্রাইস ইন বাংলাদেশ,আইফোন 5 প্রাইস ইন বাংলাদেশ,আইফোন ১১ প্রো দাম বাংলাদেশ,আইফোন ৬ এর বাংলাদেশ দাম কত,আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্স দাম কত,আইফোন ১৩ প্রো দাম বাংলাদেশ,আইফোন 8 প্লাস বাংলাদেশ প্রাইস,আইফোন এক্স বাংলাদেশ প্রাইস,আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স প্রাইস ইন বাংলাদেশ,আইফোন 7 দাম কত,আইফোন 12 প্র মেক্স,আইফোন 13 প্রো ম্যাক্স,আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স,আইফোন 5 এর দাম কত,আইফোন 7 বাংলাদেশ প্রাইস,আইফোন 6 প্রাইস ইন বাংলাদেশ,আইফোন 5 প্রাইস ইন বাংলাদেশ,আইফোন ১১ প্রো দাম বাংলাদেশ,আইফোন ৬ এর বাংলাদেশ দাম কত,আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্স দাম কত,আইফোন ১৩ প্রো দাম বাংলাদেশ,আইফোন 6 বাংলাদেশ প্রাইস,আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স বাংলাদেশ প্রাইস,আইফোন টুয়েলভ প্রো ম্যাক্স প্রাইস ইন বাংলাদেশ,কোন দেশের আইফোন সবচেয়ে ভালো,আইফোন ৭ প্লাস এর দাম বাংলাদেশ।

About the Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may also like these

Share via
Copy link