Best Time To Eat Fish: শীতে মাছ খাওয়া বেশি জরুরি কেন? জানতে পড়ুন

Best Time To Eat Fish

Best Time To Eat Fish: সবাই জানে মাছে-ভাতে বাঙালি। প্রায় সবাই প্রতিদিনের খাবারের কোনো না কোনো সময় মাছ খায়। কেউ ছোট মাছ পছন্দ করে আবার কেউ বড় মাছ পছন্দ করে। যে মাছই আপনার ভালো লাগে সেটি এই শীতে নিয়মিত খাওয়া জরুরি। আসলে, মাংস এবং ডিমের চেয়ে বেশি মাছ খেলে আরও বেশি স্বাস্থ্য উপকার হবে বলে বিশেষজ্ঞরা বলছেন। তাদের মতে, শীতকালে প্রায় প্রতিদিনই মাছ খাওয়া ভালো।

জেনে নিন Best Time To Eat Fish

মাছ শুধু তৃপ্তি দেয় না, শরীরের উপকারও বয়ে আনে। শীতকালে এমনিতেই নানা রোগ দেখা দেয়। আর শীতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারে মাছ। চলুন জেনে নিই এই সময়ে মাছ খাওয়ার উপকারিতা।

আরও পড়ুনঃ  টনসিল হলে কি কি সমস্যা হয় জানা জরুরি | টনসিল হলে কি কি খাওয়া যাবে না
Eat Fish
Best Time To Eat Fish: শীতে মাছ খাওয়া বেশি জরুরি কেন? জানতে পড়ুন

ওজন নিয়ন্ত্রণ

শীতে ওজন বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। কারণ এ সময় অনেকেই খাওয়া-দাওয়ার ক্ষেত্রে নিয়ম মানতে চান না। কিন্তু মাছ খেলে ওজন বাড়বে না। কারণ মাছে রয়েছে প্রোটিন, যা ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে।

হার্ট ভালো রাখতে

শীতে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি থাকে। তাই এমন কিছু খাবার খেতে হবে যা হার্টের খেয়াল রাখে। মাছ সেই তালিকায় একেবারে উপরের দিকে আছে। বিশেষ করে সামুদ্রিক মাছ হৃদয়ের যত্ন নিতে খুবই দক্ষ। কারণ এই মাছে রয়েছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড , যা হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায়।

পেশি মজবুত করতে

পেশিতে ব্যথা, গাঁটে গাঁটে যন্ত্রণা বেড়ে যায় শীতে। তাছাড়া বয়স বেশি হলে ঠান্ডা আবহাওয়ায় এসব ব্যথা যেন দ্বিগুণ হয়। ব্যথার সঙ্গে লড়াই করতে ভরসা রাখতে পারেন মাছের উপর। মাছের অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি উপাদান প্রদাহজনিত সমস্যা কমায়।

আরও পড়ুনঃ  Immunity Booster Foods: শীতের দিনে রোগ প্রতিরোধকারি খাবার, যা আপনার রান্নাঘরেই আছে!

মন ভালো রাখতে

শীতে সূর্যের আলো কম থাকে। ফলে ভিটামিন ডি কম শোষিত হয়। ভিটামিন ডি এর অভাবে মনের কোণেও মেঘ জমতে থাকে। বাড়ে উদ্বেগ আর অবসাদ। আর এ সমস্যাতেও মাছ বেশ উপকারী। কারণ মাছে ভরপুর পরিমাণে আছে ভিটামিন ডি।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে

শীতকালে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা জোরদার করা জরুরি। এতে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমে যাবে। আর তার জন্য প্রতিদিন খাবারের মেনুতে মাছ রাখা জরুরি। মাছে রয়েছে ভিটামিন ডি, যা রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করার শক্তি জোগায়। এছাড়া মাছে থাকে সেলেনিয়াম, যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। যুক্ত থাকুন আমাদের Whatsapp গ্রুপে।

এই লেখাগুলি পড়তে পারেন

আরও পড়ুনঃ  রাতে না ঘুমিয়ে দিনে ঘুমালে কি ক্ষতি হয়? আপনি এভাবে ঘুমান নাতো?

About the Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may also like these

Share via
Copy link