Chatgpt হেরে গেলো ৬০ দশকের কম্পিউটারের প্রোগ্রামে, জেনে নিন বিস্তারিত

Chatgpt হেরে গেলো ৬০ দশকের কম্পিউটারের প্রোগ্রামে

আপনারা জানলে অবাক হবেন যে, Chatgpt হেরে গেলো ৬০ দশকের কম্পিউটারের প্রোগ্রামে। ষাটের দশকের মাঝামাঝি, ‘Eliza নামে পরিচিত এই প্রাথমিক পর্যায়ের চ্যাটবটটি এমআইটি বিজ্ঞানী জোসেফ জোসেফ উইজেনবাউম তৈরি করেছিলেন।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা এবং মানুষের ক্ষমতার তুলনামূলক পরীক্ষায় ভাইরাল চ্যাটবট ChatGPT কে হারিয়ে দিয়েছে 1960-এর দশকে তৈরি একটি কম্পিউটার প্রোগ্রাম ‘Beats।

ষাটের দশকের মাঝামাঝি, ‘Eliza‘ নামে পরিচিত এই প্রাথমিক পর্যায়ের চ্যাটবটটি এমআইটি বিজ্ঞানী জোসেফ জোসেফ উইজেনবাউম তৈরি করেছিলেন।

সম্প্রতি ক্যালিফোর্নিয়া সান দিয়েগো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা ChatGPT-এর বিরুদ্ধে এর ক্ষমতা পরীক্ষা করেছেন।

সেই পরীক্ষাগুলিতে, এলিয়েজারের পারফরম্যান্স ChatGPT-এর ফ্রি সংস্করণ ‘GPT 3.5’-এর চেয়ে খুবই ভাল।

মানুষের কথোপকথন অনুকরণ করার জন্য একটি মেশিনের ক্ষমতা পরীক্ষা করার জন্য ব্যবহৃত মানদণ্ডকে ‘টুরিং টেস্ট’ বলা হয়। আর এর উদ্ভাবক হলেন পঞ্চাশের দশকের ব্রিটিশ কম্পিউটার বিজ্ঞানী অ্যালান টুরিং।

আরও পড়ুনঃ  চ্যাট জিপিটির নতুন CEO এক ভারতীয় বংশোদ্ভূত ''মীরা মূর্তি'' - জানুন তার সম্মন্ধে

সাম্প্রতিক পরীক্ষায় অংশ নেন ৬৫২ জন মানুষ, যাদের যাচাই করে দেখতে হয়েছে তারা ইন্টারনেটে অন্য কোনো মানুষ বা এআই চ্যাটবটের সঙ্গে কথা বলছেন কিনা।

তবে, পরীক্ষায় এলিজার চেয়ে ৪১ শতাংশ বেশি সাফল্য দেখিয়েছে ওপেনএআইয়ের আর্থিক ফিভিত্তিক চ্যাটবট ‘জিপিটি ৪’।

পরীক্ষায় ২৭ শতাংশ ক্ষেত্রে মানুষ হিসাবে বিশ্বাসযোগ্যতা পেয়েছে এলিজা। অন্যদিকে, জিপিটি ৩.৫-এর সাফল্যের হার কেবল ১৪ শতাংশ।

এলিজার এ সাফল্যকে এআই চ্যাটবট নিয়ে কাজ করা আধুনিক প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোর জন্য ‘বিব্রতকর’ হিসেবে ব্যাখ্যা করেছেন এআই বিশেষজ্ঞ গ্যারি মার্কাস। তবে শিক্ষাবিদদের একটি অংশের দাবি, টার্নিং টেস্টে ভালো ফলাফল দেখানোর উদ্দেশ্যে চ্যাটজিপিটি নকশা করা হয়নি।

Does GPT 4 Pass the Turning Test
Does GPT 4 Pass the Turning Test

“পরীক্ষার প্রশ্নপত্র পড়লে, আপনার কাছে এলিজার জিপিটি ৩.৫’কে পরাজিত করার বিষয়টি মোটেও চমকপ্রদ মনে হবে না,” এক্স-এ পোস্ট করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের হোয়ারটন স্কুলের এআই বিষয়ক অধ্যাপক ইথান মল্লিক।

আরও পড়ুনঃ  পুরাতন আইফোন কেনার আগে জেনে নিন বিস্তারিত | কম দামে আইফোন

“ওপেনএআই ছদ্মবেশের ঝুঁকি গুরুত্বের সাথে নেয়। এছাড়াও ChatGPT RLHF (রিইনফোর্সমেন্ট লার্নিং ফ্রম হিউম্যান ফিডব্যাক) নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে মানুষের ক্ষমতাকে অতিক্রম করার চেষ্টা করে না।

অন্যদিকে, এলিজা এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যেখানে এটি আমাদের মনস্তত্ত্বকে কাজে লাগাতে এবং পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারে।”

পরীক্ষারয় অংশ নেওয়া ব্যাক্তিরা কেন এলিজাকে মানুষ হিসেবে দেখেছেন তার আরেকটি সম্ভাব্য কারণ হল যে এটি প্রচলিত এআই মডেলের তুলনায় ‘ভুল উত্তর পাওয়ার’ প্রবণতা বেশি। ফলস্বরূপ, অনেকে ধরে নিয়েছিল যে এটি মানব এবং প্রশ্নের উত্তর দিতে পারে না।

যদিও এটি গবেষণার অংশ নয়, প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞানের অধ্যাপক শ্রী অরবিন্দ নারায়ণন বলেছেন,

“পরীক্ষার ফলাফল থেকে চ্যাটবটের ক্ষমতা যাচাই করা সম্ভব নয়। ChatGPT এর নিজস্ব ফরম্যাট আছে, যেখানে মতামত প্রকাশের সুযোগ নেই। তাই এটি তার চেয়ে কম মানবিক বলে মনে হচ্ছে।”

শ্রী অরবিন্দ নারায়ণন

গবেষণাটি ‘Does GPT 4 Pass the Turning Test‘ শিরোনামে প্রকাশিত হয়েছিল। আপনাদের কি মনে হয় AI কি আমাদের উপর কতৃত্ব করবে? আপনাদের ধারনা আমাদেত জানান কমেন্টবক্সে। এছাড়া অন্যান্য খবর পড়তে আমাদের মূলপাতা ভিজিট করুন।

আরও পড়ুনঃ  Hosting Bangladesh Review 2023 | হোস্টিং বাংলাদেশ রিভিউ 2023

About the Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may also like these

Share via
Copy link