ইউটিউব শর্টস মনিটাইজেশন নিয়ম 2023 | ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম

ইউটিউব শর্টস মনিটাইজেশন নিয়ম

অনলাইন থেকে যারা ধৈর্য দিয়ে টাকা আয় করতে চান তাদের জন্য আমাদের আজকের পোষ্ট “ইউটিউব শর্টস মনিটাইজেশন নিয়ম 2023“। আপনারা এই পোষ্ট থেকে বিস্তারিত অনলাইন থেকে টাকা ইনকামের বিষয় জানতে পারবেন। আশাকরি পুরো সময় জুড়ে আমাদের সাথেই থাকিবেন। আমাদের এই আর্টিক্যাল ভালো লাগলে অবশ্যই আমাদের একতি রেটিং দিয়ে যাবেন এবং একটি শেয়ার করে দিবেন, সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে শুরু করলাম এই আর্টিক্যাল। আপনি চাইলে আমাদের এই ওয়েবসাইটে আপনি আপনার নামে গেস্ট পোষ্ট করতে পারেন। গেস্ট পোষ্ট করতে চাইলে আমাদের ফেসবুক পেইজে যোগাযোগ করুন।

ইউটিউব শর্টস মনিটাইজেশন নিয়ম

ইউটিউব শর্টস মনিটাইজেশন নিয়ম 2023

বন্ধুরা ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম করাটা বর্তমানে কোনো একটা কঠিন কাজ না। সাধারণ লম্বা লম্বা ইউটিউব ভিডিও গুলোর থেকে এই শর্ট ভিডিও গুলো সম্পূর্ণ আলাদাতবে আপনি কোনো চিন্তা করবেননা, আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা ইউটিউব শর্টস থেকে আয় করার উপায় গুলো বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করবো

ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম হিসেবে বছরের পর বছর ধরে সাধারণ মানুষের মনোরঞ্জন করে আসছে YouTube। মিউজিক ভিডিও, সিনেমা-সিরিজ জাতীয় যেকোনো ধরণের ভিডিও হোক কিংবা কোনো শিক্ষামূলক টিউটোরিয়াল সমস্ত কিছু হাতের নাগালে পেতে ভরসা এই লাল রঙের লোগোযুক্ত প্ল্যাটফর্মটি।

আবার সাম্প্রতিক সময়ে শুধু ভিডিও প্রদর্শন নয়, বরঞ্চ YouTube ভিডিও নির্মাতাদের আয়ের সুযোগও করে দিচ্ছে। বিগত বছরগুলিতে ভিডিও বানিয়ে প্রচুর টাকা এবং জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন বা করছেন কিরণ দত্ত (The Bong Guy), ভুবন বাম (BB Ki Vines), জিমি ডোনাল্ডসনেরা (মি. বিস্ট)। কিন্তু সময়ের সাথে পাল্টাচ্ছে YouTube-ও; এখন YouTube ভিডিওর জায়গা নিচ্ছে YouTube Shorts।

আসলে YouTube Shorts ভিডিওর মাধ্যমে সাধারণত ১৫ সেকেন্ডের ভিডিও তৈরি করা হয়, যদিও এই স্বল্প দৈর্ঘ্যের ভিডিও থেকে কোনো আয় হয়না। সেক্ষেত্রে এখন সংস্থাটি ৫৯ সেকেন্ড অর্থাৎ প্রায় ১ মিনিটের শর্ট ভিডিওগুলির ক্ষেত্রে আয় করার সুযোগ দেবে বলে জানা গিয়েছে। মানে এখন থেকে মিনিটের পর মিনিট ধরে ভিডিও না বানালেও কন্টেন্ট ক্রিয়েটররা আয় করতে পারবেন।

সাধারণ একটি  ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা আয় করার এমনিতে প্রচুর উপায় থাকে। যেমনঃ

  • YouTube partner program
  • Video এর জন্যে Monetization চালু করে
  • এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে
  • Sponsorship, ইত্যাদি।

তবে, YouTube এর long videos গুলোর থেকে সরাসরি টাকা ইনকাম করার ক্ষেত্রে সাধারণত ৪টি স্টেপ সম্পূর্ণ করতে হয়।

  1. YouTube partner program জয়েন করতে হয়,
  2. নিয়মিত লম্বা ভিডিও তৈরি করে পাবলিশ করা,
  3. Video এর জন্যে monetization চালু করা,
  4. শেষে, advertising revenue সংগ্রহ করুন।
আরও পড়ুনঃ  Shopify থেকে টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশে ২০২৪

তবে, YouTube Shorts (যেখানে ৬০ সেকেন্ড বা তার থেকে কম সময়ের ছোট ভিডিও বানানো হয়) এর কোনো সোজা বা Traditional Monetization Program নেই।

কীভাবে YouTube Shorts থেকে আয় করা যাবে?

ইউটিউব কর্তৃপক্ষের মতে, প্ল্যাটফর্মটিতে বহু প্রতীক্ষিত শর্টস মনিটাইজেশন এবার কার্যকর হওয়ার পথে। আর এই মনিটাইজেশন থেকেই হুবহু ইউটিউব ভিডিওর মত আয় করা যাবে। এক্ষেত্রে ইউটিউব শর্টস থেকে আয় করার জন্য ভিডিও ক্রিয়েটরদের তিনটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে:-

  1. প্রথমত, ভিডিও ক্রিয়েটরদের সাবস্ক্রাইবার যত বেশি হবে, সেই হিসেবে তিনি বিজ্ঞাপন পাবেন। তাই সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা বাড়ানোর দিকে নজর দিতে হবে।
  2. দ্বিতীয়ত, শর্ট ভিডিওটির সময় বা ড্যুরেশন কত, তার ওপর ক্রিয়েটরের উপার্জন নির্ভর করবে।
  3. এছাড়া কোনো ব্র্যান্ডের প্রচার করেও আয় করতে পারবেন ভিডিও ক্রিয়েটররা।

আরও বিস্তারিত নিচেই উল্লেখ করেছি।

ইউটিউব ইনকাম

ইউটিউব প্রায় প্রতিটি দেশেই খুব জনপ্রিয় এবং বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ এই অনলাইন প্ল্যাটফর্মটি ব্যবহার করছে প্রতিদিন। আজকাল কেউ কেউ ইউটিউবের মাধ্যমে চ্যানেল তৈরি করে তাদের পণ্যের প্রচার করেঅনেকেই ইউটিউব থেকে আয় করার জন্য ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করছেন। এগুলি ছাড়াও অনেক ব্যবহারকারী আছেন যারা ইউটিউবের মাধ্যমে পড়াশোনা, কোর্স, টিউটোরিয়াল ইত্যাদি নিচ্ছেন এবং বিভিন্ন জিনিস শিখছেন। ইউটিউব অনেক মানুষের জীবন বদলে দিয়েছে যা অবিশ্বাস্ব।

ইউটিউবের ঐতিহ্যবাহী ভিডিও ঐতিহ্যের একটি নতুন সংযোজন হল YouTube Shorts। অনেকেই YouTube Shorts ব্যবহার করতে খুব আগ্রহী কারণ YouTube Shorts-এর বৈশিষ্ট্যগুলি কিছুটা TikTok-এর মতোই।

YouTube Shorts ব্যবহারকারীদের Tik Tok-এর মতো ছোট ভিডিও তৈরি করতে এবং অনলাইনে লোকেদের সাথে শেয়ার করতে দেয়। YouTube Shorts ছোট ভিডিও তৈরির জন্য অনেক ভিডিও ইফেক্ট অফার করে। ফলস্বরূপ, ব্যবহারকারী সহজেই একটি পেশাদার ভিডিও তৈরি করতে পারেন।

আমাদের আজকের আর্টিকেলে আমরা ইউটিউব শর্টস সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব এবং কীভাবে সেগুলির মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করা যায়

ইউটিউব শর্টস

ইউটিউব শর্টস হল একটি YouTube পরিষেবা যা আপনাকে ছোট ভিডিও তৈরি করতে অনুমতি দেয়। ইউটিউব থেকে যোগ করা ভিডিও ইফেক্টের কারণে ভিডিওগুলির একটি পেশাদার চেহারা আছে। Tik Tok জনপ্রিয় হওয়ার পর Tik Tok-এর মতো অনেক অ্যাপ চালু হয়েছে। ব্যবহারকারীদের জনপ্রিয়তার কথা মাথায় রেখে ইউটিউব শর্টস নামে একটি ছোট ভিডিও সেবা চালু করেছে।

যদি কোন ব্যবহারকারী ইউটিউবে একটি সংক্ষিপ্ত ভিডিও তৈরি করতে চান, তাহলে তিনি সহজেই মোবাইল থেকে তা করতে পারবেন। আপনি সহজেই ছোট ভিডিও তৈরি করতে পারেন এবং সরাসরি YouTube অ্যাপের মাধ্যমে শেয়ার করতে পারেন। ইউটিউব শর্টে মিউজিক, ভিডিও ট্রিমিং, ভিডিও স্পিড কন্ট্রোল সহ আরও অনেক ফিচার রয়েছে।

ইউটিউব শর্টস এর কয়েকটি বৈশিষ্ট্য 

  • আপনি ১ মিনিটের ছোট ভিডিও করতে পারবেন। 
  • ইউটিউব শর্টসে একটি দুর্দান্ত মাল্টি সেগমেন্ট ক্যামেরা ফিচার রয়েছে যার ফলে আপনি খুব সহজেই একাধিক ভিডিও ক্লিপ একসাথে সংযুক্ত করতে পারবেন। 
  • আপনি আপনার রেকর্ড করা ভিডিওর সাথে বিভিন্ন ধরনের মিউজিক যুক্ত করতে পারবেন।
  • আপনার ভিডিওর গতি আপনি সহজে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। 
  • ইউটিউব শর্টসের মাধ্যমে আপনি আপনার ইউটিউব কমিউনিটি অথবা চ্যানেলকে অনেক দ্রুত বৃদ্ধি করতে পারবেন। 
  • আপনি ভিডিও রেকর্ড করতে টাইমার এবং কাউন্টডাউন ফিচার ব্যবহার করতে পারবেন। 
  • ভিডিওতে খুব সহজেই স্লো মোশন ইফেক্ট ব্যবহার করতে পারবেন। 
  • আপনি ভিডিওর আকর্ষণ বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের ফিল্টার এবং ইফেক্ট ব্যবহার করতে পারবেন। 
আরও পড়ুনঃ  ফেসবুক থেকে টাকা ইনকামের উপায় | Facebook Income In Bangladesh

আপনি কিভাবে ইউটিউব শর্টস ভিডিও বানাবেন?

যদি আপনি ইউটিউবের শর্টস ফিচার ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনার মোবাইল থেকে ইউটিউব অ্যাপ খুলতে হবে। তবে এই ক্ষেত্রে, আপনাকে নিশ্চিত করতে হবে যে আপনার YouTube অ্যাপ আপডেট করা আছে। আমি আপনাকে এখানে একটি ভিডিও টিউটরিয়াল দিয়ে দিলাম।

  • একটি খোলার পরে আপনি নিচে মাঝখানে একটি প্লাস আইকন দেখতে পারবেন। সেই আইকনে ক্লিক করুন। 
  • এখানে থাকা ক্রিয়েট এ শর্ট অপশনে ক্লিক করুন।
  • এবার আপনার মোবাইলের ক্যামেরা ভিডিও রেকর্ডিং এর জন্য খোলা হবে। আপনি আপনার ইচ্ছামত এখান থেকে ভিডিও রেকর্ড করুন। 
  • ভিডিও রেকর্ড করার পরে আপনি ভিডিওতে গান যোগ করতে পারেন অথবা বিভিন্ন রকমের ফিল্টার এবং ইফেক্ট ব্যবহার করতে পারেন। 
  • সঠিকভাবে ভিডিও তৈরি ও এডিট করার পরে আপনাকে টাইটেল এবং বর্ণনা দিতে হবে। 
  • সবশেষে আপনি আপনার ভিডিওটি ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করতে পারবেন। 

তবে আপনাকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে ইউটিউব শর্ট ভিডিও করার জন্য আপনার অবশ্যই একটি ইউটিউব একাউন্ট থাকা দরকার। কেননা যখনই আপনি ভিডিও বানাবেন এবং আপলোড করবেন ভিডিওগুলো আপনার ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড হবে। 

ইউটিউব শর্টস মনিটাইজেশন

যারা ইউটিউবে শর্ট ভিডিও আপলোড করে ভালো মানের ভিউ এনগেজমেন্ট পেয়েছে তাদের প্রতিমাসে ১০০ থেকে ১০ হাজার ডলার দেয়া হচ্ছে ইউটিউবে। 2023 এর শুরুতে, এই শর্টস বোনাস তহবিলটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এবং একটি বিজ্ঞাপন ভিত্তিক আয় ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে। অর্থাৎ এখন আপনি YouTube পার্টনার প্রোগ্রামের মাধ্যমে শর্টস থেকে আয় করতে পারবেন।

ইউটিউব থেকে আয় করার ১২ পদ্ধতি

ইউটিউব শর্টস প্রথমে আপনার চ্যানেলের গ্রোথ বৃদ্ধিতে সাহায্য করবে। এর ফলে আপনার চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার বাড়বে। চ্যানেলে ভিজিটরের সংখ্যা বাড়ার সাথে সাথে গুগল এডসেন্সের আয়ও বৃদ্ধি পাবে। আপনি চাইলে ইউটিউব শর্টস ভিডিওর মাধ্যমে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংও করতে পারেন। আপনার প্রোডাক্টের প্রচারের প্রয়োজন হলে আপনি ইউটিউব শর্টস ব্যবহার করতে পারেন।

ইউটিউব থেকে আয় করার ১২ পদ্ধতি

কিংবা আপনি যদি নিয়মিত ইউটিউবে শর্টস ভিডিও আপলোড করেন এবং আপনার চ্যানেলে ভিউ এনগেজমেন্ট ভালো তাহলে ছোট বড় অনেক ব্র‍্যান্ড কিংবা কোম্পানি আপনাকে স্পন্সর করবে। তখন আপনি তাদের প্রোডাক্ট বা সেবাগুলো আপনার ভিডিওর মাধ্যমে প্রচার করার ক্ষেত্রে তাদের কাছ থেকে টাকা নিতে পারবেন। ব্র্যান্ড স্পন্সরশিপ বা ডিল পাবার জন্য আপনার কাছে লক্ষ লক্ষ সাবস্ক্রাইবার এবং ভিউ থাকতে হবে এমন প্রয়োজন নেই।

আরও পড়ুনঃ  অনলাইন ইনকাম সাইট বিকাশ পেমেন্ট | বাংলাদেশ অনলাইন ইনকাম

আপনার একটি টার্গেটেড অডিয়েন্স এবং ভালো ইউটিউব প্রোফাইল থাকাটা জরুরী। ইউটিউব শর্টস এর দর্শক প্রচলিত দর্শকদের তুলনায় অনেক বেশি। তাই আপনার প্রচারমূলক বিষয়বস্তু অনেক মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারবে।

বর্তমান সময়ে ইউটিউব এর মনিটাইজেশন প্রোগ্রাম এর মধ্যে শর্টস ভিডিও গুলোকে যুক্ত করা হয়েছে। আপনাকে লম্বা লম্বা ভিডিও বানিয়ে সেগুলো আপলোড করে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার এবং ৪০০০ ওয়াচ আওয়ার এর নিয়ম মেনে ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রামের জন্য এপ্লাই করতে হবে।

তবে ২০২৩ এর শুরুতেই যে সব ইউটিউবারদের ৯০ দিনের মধ্যে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার এবং 10 মিলিয়ন শর্টস ভিউ হয়ে গেছে সেই সকল ক্রিয়েটররা ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রাম এর জন্য এপ্লাই করতে পারবে। এর ফলে ইউটিউব এর অন্যান্য মনিটাইজেশন টুল যেমন ভিডিও থেকে এড রেভিনিউ, সুপার থ্যাংকস, সুপার চ্যাট, চ্যানেল মেম্বারশিপ এসকল সুবিধা পাওয়া সম্ভব। ইউটিউবের অন্যান্য ইনকাম করার মাধ্যম গুলোর মতোই ইউটিউব শর্টস রেভিনিউ শেয়ারিং মডেল হিসেবেই ইনকাম করার সুযোগ দিচ্ছে। ক্রিয়েটরদের কন্টেন্ট দ্বারা পাওয়া এডভার্টাইজিং রেভিনিউ এর ৪৫% ক্রিয়েটরদের দেওয়া হয়ে থাকে। তবে বড় ভিডিও গুলোর ক্ষেত্রে এটি ৫৫% হয়ে থাকে। কিন্তু ভিডিও দৈর্ঘ্যের অনুপাতে এটির মাধ্যমে ভালো ইনকামই করা যায়।

আমাদের অন্যান্য লেখা>>>

আমাদের শেষ মতামত

বন্ধুরা ছোট ভিডিওর ভিউ থেকে বিজ্ঞাপনের আয় হল YouTube শর্টস থেকে উপার্জন করার একটি দুর্দান্ত উপায়। কারণ গত বহু বছর ধরে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে বড় বড় ভিডিও তৈরি করা নির্মাতারা নিয়মিত লাখ লাখ টাকা আয় করছেন। আশা করি ইউটিউব শর্টস থেকে কিভাবে আয় করতে হয় সে সম্পর্কে বিস্তারিত বুঝতে পেরেছেন। আমাদের এই লেখাটি কেমন লেগেছে তা কমেন্ট করে জানাতে পারেন। নতুন প্রযুক্তি সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য ও টিপস পেতে চোখ রাখুন আমাদের ওয়েবসাইটে

ইউটিউব শর্টস দিয়ে আয় করা যায়?

ইউটিউব শর্টস প্রথমে আপনাকে আপনার চ্যানেলের গ্রোথ বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে। এর ফলে আপনার চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার বাড়বে। চ্যানেলে ভিজিটরের সংখ্যা বাড়ার সাথে সাথে গুগল এডসেন্সের আয়ও বৃদ্ধি পাবে। আপনি চাইলে ইউটিউব শর্টস ভিডিওর মাধ্যমে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংও করতে পারেন। আপনার প্রোডাক্টের প্রচারের প্রয়োজন হলে আপনি ইউটিউব শর্টস ব্যবহার করতে পারেন।

ইউটিউবে কত ভিউ থাকলে টাকা ইনকাম করা যায়?

১০০০ ভিউ অনেক কম, যদি আপনি ইউটিউবের থেকে টাকা কমানোর কথা ভাবছেন। আমার প্রথম ১০০ ডলারের পেমেন্ট আমি পেয়েছি যখন আমার চ্যানেলে টোটাল ১.৫ লক্ষ ভিউ হয়েছিল।

About the Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may also like these

Share via
Copy link