ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি ২০২৩ | ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি

ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি
ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি
ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি

ভিউয়ার্স আজ আপনাদের সাথে আমরা নতুন একটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করব। আমাদের আজকের বিষয় হচ্ছে ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি ২০২৩ নিয়ে। এই বিষয়ে স্পষ্ট ধারনা অর্জন করতে পারবেন নিম্নে বর্নিত পোষ্টটি পড়ে।

ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি ২০২৩

বর্তমানে ইউটিউবে আয়ের সবচেয়ে সেরা ও সহজ উপায় হলো ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রাম। এবার ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রাম এর রিকোয়ারমেন্টস কমিয়ে দিচ্ছে ইউটিউব, যার ফলে আরো অনেক অনেক ক্রিয়েটর পার্টনার প্রোগ্রামের অন্তর্ভুক্ত হতে পারবেন সহজে। চলুন জেনে নেওয়া যাক ইউটিউব মনিটাইজেশন এর নতুন পলিসি সম্পর্কে। প্রথমত ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রাম এর অন্তর্ভুক্ত যুক্তরাষ্ট্র-ভিত্তিক ইউটিউবার যাদের ২০ হাজার এর অধিক সাবস্ক্রাইবার রয়েছে তাদের জন্য শপিং এফিলিয়েট প্রোগ্রামটি উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। এর ফিচারটি ধীরে ধীরে বিশ্বের সকল স্থানে ছড়িয়ে যাবে বলে আশা করা যায়। ইউটিউব মনেটাইজেশন এর নতুন শর্তাবলী নিম্নরূপঃ

  • কমপক্ষে ৫০০ সাবস্ক্রাইবার থাকতে হবে
  • শেষ ৯০দিনে ৩টি পাবলিক আপলোড থাকতে হবে
  • গত ১২ মাসে কমপক্ষে ৩,০০০ ঘন্টা ওয়াচ আওয়ার বা গত ৯০ দিনে ৩ মিলিয়ন শর্টস ভিউস
আরও পড়ুনঃ  অনলাইন ইনকাম সাইট বিকাশ পেমেন্ট | বাংলাদেশ অনলাইন ইনকাম

এর আগে ইউটিউবে মনিটাইজেশন পেতে কমপক্ষে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার, শেষ ১২মাসে ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ আওয়ার বা শেষ ৯০ দিনে ১০ মিলিয়ন শর্টস ভিউস এর প্রয়োজন হতো।

ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি

কোনো ক্রিয়েটর এর চ্যানেল নতুন রিকোয়ারমেন্টস এর সাথে মিললে সেক্ষেত্রে তিনি পার্টনার প্রোগ্রামের জন্য এপ্লাই করতে পারবেন ও সুপার থ্যাংক্স, সুপার চ্যাট, সুপার স্টিকারস, চ্যানেল মেম্বারশিপ এর মত সাবস্ক্রিপশন টুল ও ইউটিউব শপিং এর অ্যাকসেস পাবেন। যদিও, যেসব ক্রিয়েটর অনেক লম্বা সময় নিয়ে ভিডিও তৈরী করেন তাদের কাছে শেষ ৯০ দিনে কমপক্ষে তিনটি ভিডিও আপলোড করার প্রসেস কিছুটা কঠিন মনে হতে পারে। তবে এটা সামগ্রিকভাবে আগের চেয়ে অনেক সুবিধাজনক হবে বলে আশা করা যায়।

আরও পড়ুনঃ  অনলাইন থেকে আনলিমিটেড টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় | Recharge Business
ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি
ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি

এই নতুন রিকোয়ারমেন্টস যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, তাইওয়ান ও সাউথ কোরিয়াতে প্রথমে চালু হবে। এরপর ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রাম রয়েছে এমন সকল দেশে এই ফিচারটি পৌঁছে যাবে।

গুগল এর মালিকানাধীন কোম্পানিটি শর্টস ক্রিয়েটরদের জন্য নতুন মনিটাইজেশন টুল নিয়ে কাজ করছে অনেকদিন ধরেই। ফেব্রুয়ারিতে ক্রিয়েটরদের সাথে শর্টস এর রেভিনিউ শেয়ার করা শুরু ইউটিউব। ২০২২ সালের চতুর্থ কোয়ার্টারের আরনিং কলে জানানো হয় ডেইলি ৫০ বিলিয়ন ভিউস হয় ইউটিউব শর্টসে। গত অক্টোবরে মেটা জানায় ইন্সটাগ্রাম ও ফেসবুক মিলিয়ে রিলস এর ভিউস দৈনিক ১৪০ বিলিয়ন ক্রস করেছে।

আমাদের শেষ কথাঃ

ইউটিউবে ইনকাম করার জন্য যে পলিসি ও গাইডলাইন আছে, সেগুলি ফলো করলেই মূলত সেখা থেকে ইনকাম করা সম্ভব। আর আমি আজ ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি ২০২৩ এই বিষয় নিয়ে আলোচনা করলাম তা আপনাদের সবার কাজে লাগবে।

আরও পড়ুনঃ  সোশ্যাল মিডিয়া থেকে টাকা উপার্জন করার উপায়

TAG: ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি ২০২৩,ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি,ফেসবুক মনিটাইজেশন পলিসি,ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি ২০২২,youtube monetization policy 2023,youtube monetization policy 2022,youtube monetization policy in 2022,2022 youtube monetization policy,what is youtube monetization policy,new youtube monetization policy,youtube monetization policy 2022 bangla,latest youtube monetization policy.

About the Author

2 thoughts on “ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি ২০২৩ | ইউটিউব মনিটাইজেশন পলিসি

    1. এডসেন্স পেলে আমি আপনাকে অবশ্যই জানাবো। তখন আমি লেখক নিব। ধন্যবাদ আপনাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may also like these

Share via
Copy link