কিভাবে ফেসবুক রিলস থেকে ইনকাম করতে হয় জেনে নিন

ফেসবুক রিলস থেকে ইনকাম

আজকে এই ব্লগে আলোচনার বিষয় হলো “ফেসবুক রিলস থেকে ইনকাম” কিভাবে করবেন। তো সম্পূর্ন পোষ্ট মন দিয়ে পড়লেই জানতে পারবেন কিভাবে রিলস থেকে টাকা আয় করবেন।

বর্তমান সময় ফেসবুকের মূল কোম্পানি মেটা, রিলস এ প্রচুর অর্থ বিনিয়োগ করছে। ফেসবুকের রিলে সোশ্যাল মিডিয়া কোম্পানি টিকটকের মত ছোট ভিডিয়ো হয়ে থাকে।

এখন ফেসবুকের রিলস থেকেও ভালো টাকা আয় করা সম্ভব। রিল থেকে টাকা আয় করার একাধিক সুযোগ দিচ্ছে ফেসবুক। মেটার মতে রিলস হল ফেসবুকে সব থেকে দ্রুত উন্নতি করা ভিডিয়ো ফরম্যাট। বস্তুত মেটার 150টি দেশের তথ্য অনুযায়ী, ব্যবহারকারীরা ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামে আর্ধেক সময় রিলস দেখে কাটায়

একটি ফেসলুক রিল মূলত 3 সেকেন্ড থেকে 60 সেকেন্ড পর্যন্ত দীর্ঘ্য হয়ে থাকে। আরও পড়ুন: ফেসবুক পেজ থেকে টাকা ইনকাম করার নিয়ম – সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারেন

আজকাল অনলাইনে অর্থ উপার্জনের বিভিন্ন উপায় রয়েছে। ইন্টারনেটে অনেক ধরনের আর্নিং সাইট আছে যেগুলো ব্যবহার করে অনলাইনে ডলার আয় করা যায়। যাইহোক, ইন্টারনেট থেকে অর্থ উপার্জনের ক্ষেত্রে, ব্লগিং, ইউটিউব, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এবং ফ্রিল্যান্সিং প্রধানত এই ধরনের আয়ের উপর বেশি মনোযোগ দিয়ে আলোচনা করা হয়।

কিন্তু এই সমস্ত উপায় ছাড়াও, অনলাইন আয়ের আরেকটি দুর্দান্ত এবং কার্যকর উপায় হল ফেসবুক রিলস মনিটাইজেশন। বর্তমানে ফেসবুক রিল থেকে আয় করা সম্ভব হয়েছে। মেটা তাদের ফেসবুক সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি সংক্ষিপ্ত ফর্ম ভিডিও বৈশিষ্ট্য, রিল-এর জনপ্রিয়তা এবং ব্যবহার বাড়ানোর জন্য ব্যাপকভাবে বিনিয়োগ করে চলেছে। এবং রিলের জনপ্রিয়তা এবং ব্যবহার আরও বাড়াতে, নির্মাতাদের তাদের রিল ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে অর্থ উপার্জন করার সুযোগ দেওয়া হয়। আজকের নিবন্ধে আমরা ফেসবুক রিল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব এবং কীভাবে এটি থেকে অর্থ উপার্জন করা যায়।

ফেসবুক রিলস কি? – What is Facebook Reels?

Facebook Reels ফেসবুকের একটি খুব জনপ্রিয় এবং অপেক্ষাকৃত নতুন বৈশিষ্ট্য। মূলত, উল্লিখিত বৈশিষ্ট্যের মাধ্যমে ছোট ছোট ভিডিও তৈরি এবং প্রকাশ করা হয়। তবে ভিডিওগুলো ফেসবুকে প্রকাশের আগে সেগুলোতে বিভিন্ন স্পেশাল ইফেক্ট এবং মিউজিক যোগ করে আরও আকর্ষণীয় ও মজাদার করা যায়। রিলগুলি জনপ্রিয় TikTok পোস্টের মতো।

ফেসবুক রিলস থেকে ইনকাম

Facebook-এ Reels ভিডিও তৈরি করে অর্থ উপার্জন করার জন্য আপনি অনেক উপায় ব্যবহার করতে পারেন। এর মধ্যে Reels Bonus, Affiliate Marketing, Refer and Earn, Product Selling ইত্যাদি খুবই জনপ্রিয়। ভিডিও আপলোড করে অর্থ উপার্জনের ফিচার অনেক আগে থেকেই ফেসবুকে ছিল। যাইহোক, সংক্ষিপ্ত রিল ভিডিও বৈশিষ্ট্যটি ফেসবুকের একটি অপেক্ষাকৃত নতুন লঞ্চ যা রিল বোনাস দেওয়ার বৈশিষ্ট্যও অন্তর্ভুক্ত করে। সুবিধাটি ব্যবহার করে যে কেউ সহজেই ফেসবুক রিল থেকে আয় করতে পারে।

আরও পড়ুনঃ  বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কোন কাজের চাহিদা বেশি | ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ সমূহ

কিভাবে ফেসবুকে রিলস ভিডিও বানাব?

আপনি Facebook Reels ভিডিও তৈরি করতে আপনার ভিডিও তৈরির অ্যাপ বা TikTok ভিডিও তৈরির অ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন। এই ক্ষেত্রে, এটি মনে রাখা উচিত যে একটি ফেসবুক রিল ভিডিও তৈরি করতে, আপনাকে 15 সেকেন্ড থেকে 90 সেকেন্ডের মধ্যে একটি ছোট ভিডিও তৈরি করতে হবে। ভিডিও তৈরি এবং এডিট করার পরে, আপনাকে ফেসবুক ফিডে রিলস বিভাগে ভিডিও আপলোড করতে হবে। আপনি সরাসরি রিল বিভাগ থেকে ভিডিও রেকর্ড করতে পারেন, সেগুলি সম্পাদনা করতে এবং রিল হিসাবে প্রকাশ করতে পারেন। স্ক্রিনে ডিসপ্লে হওয়া নানা অপশন গুলি ব্যবহার করে সরাসরি নিজের শর্ট ভিডিওগুলোতে অডিও, টেক্সট, ইফেক্ট, ক্যাপশন এবং টাইমার ইত্যাদি যুক্ত করা যাবে। ?আপনি চাইলে ইউটিউব শর্টস মনিটাইজেশন নিয়ম 2023 | ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম করতে পারেন।

  • ফেসবুকে রিলস ভিডিও তৈরি করার জন্য সরাসরি ফেসবুক মোবাইল অ্যাপ ওপেন করুন।
  • অ্যাপ ওপেন করার সাথে সাথে নিচের দিকে প্রচুর রিলস ভিডিও গুলো দেখানো হবে। 
  • এখানেই আপনারা ক্রিয়েট রিলস এর একটি অপশন দেখতে পারবেন যেখানে আপনাকে ক্লিক করতে হবে। 
  • এবার আপনার মোবাইলের ক্যামেরা ওপেন হয়ে যাবে এবং আপনাকে ভিডিও রেকর্ডিং এর অপশন এ ক্লিক করতে হবে। 
  • আপনি ১৫ থেকে ৯০ সেকেন্ডের একটি ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন। 
  • ভিডিও রেকর্ড হয়ে গেলে স্টপ অপশনে ক্লিক করতে হবে। 
  • স্টপ এর মধ্যে ক্লিক করার পর ভিডিওটি এডিট করার জন্য অপশন দেওয়া হবে। 
  • আপনি আপনার নিজের ইচ্ছা মত ভিডিওটি এডিট করার পর এখন ভিডিওটি পাবলিশ করে দিতে পারবেন। 

এইভাবে আপনার রিল ভিডিও ফেসবুকে প্রকাশিত হবে এবং যে কেউ ফেসবুকের মধ্যে থেকে আপনার রিল দেখতে পারবে। এইভাবে, রিলস ভিডিও প্রকাশ করার পরে, আপনি Facebook থেকে আয়ের সুবিধা নিতে Facebook Reels মনিটাইজেশন প্রক্রিয়া ব্যবহার করতে পারেন।

কিভাবে ফেসবুক রিলস থেকে ইনকাম করতে হয়

ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার জন্য নানা উপায় ব্যবহার করা যেতে পারে। যেমন ধরুন রিলস ভিডিওগুলোকে ফেসবুক এড দ্বারা মনিটাইজেশন করানোর পাশাপাশি এফিলিয়েট মার্কেটিং, রেফার এন্ড আর্ন, স্পন্সারশিপ, প্রোডাক্ট সেলিং, ইউআরএল শর্টনার ইত্যাদি নানা মাধ্যমে ফেসবুক রিলস থেকে ইনকাম করা সম্ভব। তবে মনে রাখতে হবে যে ফেসবুক রিলস থেকে ইনকাম করার জন্য আপনাকে সেরা থেকে সেরা, মজার এবং আকর্ষণীয় রিলস ভিডিও গুলো তৈরি করতে হবে। এছাড়া আপনাকে কিছু রিয়েল ফলোয়ার্স অবশ্যই বানাতে হবে। 

কিভাবে ফেসবুক রিলস থেকে ইনকাম করতে হয়

ফেসবুক Ad দ্বারাঃ

ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য যেভাবে ইউটিউব ভিডিও গুলিতে বিজ্ঞাপন দেখানো হয় ঠিক সেভাবেই ফেসবুক রিলস থেকে সহজে ইনকাম করার ক্ষেত্রেও আপনি নিজের রিলস ভিডিও গুলিতে বিজ্ঞাপন ডিসপ্লে করতে পারেন। এক্ষেত্রে আপনাকে হাই কোয়ালিটির অরিজিনাল রিল ভিডিওগুলো তৈরি করে পাবলিশ করতে হবে। তবে এড এর মাধ্যমে ফেসবুক রিলস মনিটাইজেশন করার ক্ষেত্রে কেবল নির্দিষ্ট কিছু দেশের ক্রিয়েটরদেরই এই ইনকাম এর উপায় ব্যবহারের সুযোগ দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ  অনলাইন ইনকাম সাইট বিকাশ পেমেন্ট | বাংলাদেশ অনলাইন ইনকাম

এফিলিয়েট মার্কেটিং করেঃ

যদি আপনার ফেসবুক রিলস গুলিতে ভালো পরিমাণ ভিউজ আসে এক্ষেত্রে আপনি রিলস বানিয়ে এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে ইনকাম করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনি একটি ভাল অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং প্রোগ্রাম এর সাথে যুক্ত হয়ে নানান প্রোডাক্ট এবং সার্ভিস গুলিকে নিজের তৈরি করা রিলস ভিডিওর মাধ্যমে অনলাইনে প্রচার করতে পারেন। আপনি অনেক সহজেই প্রচার করা পণ্যের অ্যাফিলিয়েট লিংক ভিডিও এর ডেসক্রিপশন এ যুক্ত করতে পারবেন। এভাবে আপনার ভিডিও ধরন এবং বিষয়ের সাথে জড়িত নানা পণ্য গুলিকে ভিডিওতে প্রচার করে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ফেসবুক রিলস থেকে টাকা আয় করতে পারেন।

রেফার করে ইনকামঃ

রেফার করে টাকা ইনকাম করার প্রচুর অ্যাপস এবং ওয়েবসাইট গুলো আপনারা অনলাইনে পেয়ে যাবেন। এখন ফেসবুক রিলস বানিয়ে টাকা ইনকাম করার ক্ষেত্রে আপনারা এই রেফার এন্ড ইনকাম অ্যাপস কিংবা ওয়েবসাইট গুলিকে কাজে লাগাতে পারেন। আপনাকে একটি ভালো এবং সত্যি টাকা দেয় এমন একটি রেফার এন্ড আর্ন অ্যাপ সিলেক্ট করতে হবে। এবার নিজের ফেসবুক রিলস এর মধ্যে সেই অ্যাপটির বিষয়ে আপনাকে বলতে হবে। যদি আপনার দেওয়া রেফারেল লিংক অথবা কোড ব্যবহার করে আপনার ফলোয়ার্স বা ভিডিও ভিউয়ার্সরা সেই অ্যাপ ডাউনলোড করে ইন্সটল করে থাকে তাহলে আপনি রেফারেল মানি আয় করতে পারবেন। ?মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট App আয় করুন এখানেউ।

প্রোডাক্ট বিক্রিঃ

যদি আপনার নিজের কোন পণ্য বা পরিষেবা থাকে সেটিকে অনলাইনে কার্যকরভাবে প্রচার করার মাধ্যমে প্রচুর গ্রাহকদের আকর্ষণ লাভ করতে চাইলে ফেসবুক রিলস কাজে লাগাতে পারেন। আপনাকে নিজের পণ্য বা পরিষেবার সাথে জড়িত নানান শর্ট রিলস ভিডিওগুলো বানিয়ে ফেসবুকে নিয়মিত আপলোড দিতে হবে। এতে করে প্রচুর লোকেরা আপনার পণ্য বা পরিষেবার বিষয়ে জানতে পারবেন এবং প্রয়োজন মনে হলে সরাসরি সেগুলো আপনার থেকে কিনেও নিতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ  Work up job বাংলাদেশের সেরা ফ্রিল্যান্সিং সাইটে ইনকাম করুন

ব্রান্ডের সাথে সহযোগিতাঃ

ফেসবুক রিলস থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য নানান ব্র‍্যান্ড বা কোম্পানি গুলোর সাথে সহযোগিতা করাটাও অনেক কার্যকর ও লাভজনক উপায়। একবার যখন আপনার কাছে যথেষ্ট ফলোয়ার্স হয়ে যায় তখন নানান ব্রাঞ্চ এবং কোম্পানিগুলো তাদের পণ্য এবং পরিষেবা গুলো প্রচার করার উদ্দেশ্যে নিজে নিজেই আপনাকে কন্টাক্ট করে থাকে। তবে আপনি চাইলে নিজে থেকেও নানান কোম্পানি বা ব্র্যান্ডগুলির সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন। এভাবে নানান ব্রান্ড এর সাথে সহযোগিতা করার মাধ্যমে আপনি তাদের পণ্য বা পরিষেবাকে নিজের ভিডিওর দ্বারা প্রচার করতে পারবেন। এর বদলে আপনি কোম্পানির থেকে টাকা পেতে পারবেন।

স্টার দ্বারা ইনকামঃ

মেটা ঘোষনা করেছে যে ভিউয়ার্সরা এখন ভিডিও দেখার সময় তাদের পছন্দের কনটেন্ট ক্রিয়েটরকে স্টার পাঠাতে পারবেন। কনটেন্ট ক্রিয়েটরদের গ্রহণ করা প্রতিটি স্টার এর বিপরীতে মেটার তরফ থেকে তাদেরকে এক সেন্ট করে দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে একজন কনটেন্ট ক্রিয়েটর যত অধিক রিলস তৈরি করবেন এবং তাদের রিলস শর্ট ভিডিওগুলো যত অধিক লোকেরা দেখতে পারবেন ততই অধিক স্টার পাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে।

ক্রিয়েটর ফান্ড প্রোগ্রামঃ

ফেসবুক এর ক্রিয়েটরদের সাপোর্ট করার উদ্দেশ্যে ক্রিয়েটর ফান্ড নামের একটি প্রোগ্রাম নিয়ে এসেছে। এই প্রোগ্রাম দ্বারা সেই সকল ক্রিয়েটরদের আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয় যারা বিশেষ কিছু মাইলস্টোন সম্পন্ন করে থাকেন। যেমন ধরুন উচ্চ মানসম্মত ভিডিও কনটেন্ট তৈরি করা বা প্রচুর সংখ্যায় ফলোয়ার প্রাপ্তি ইত্যাদি। ক্রিয়েটার ফান্ড প্রোগ্রাম এর সাথে যুক্ত হওয়ার জন্য আপনাকে নিজের থেকে আবেদন করতে হবে এবং কিছু নির্ধারিত মানদন্ড গুলো অনুসরণ করতে হবে। বাংলাদেশে বিজ্ঞাপন দেখে টাকা আয় করুন সহজেই।

ফ্যান সাবস্ক্রিপশন এর মাধ্যমেঃ

ফেসবুক দ্বারা ফ্যান সাবস্ক্রিপশন নামের একটি সুবিধা প্রদান করা হয়েছে যেখানে ভিউয়াররা তাদের পছন্দের ক্রিয়েটরদের সমর্থন করার ক্ষেত্রে এক্সক্লুসিভ কন্টেন্ট এর জন্য মাসিক অর্থ পেমেন্ট করে থাকেন। তবে ফেসবুক ফ্যান সাবস্ক্রিপশন প্রোগ্রাম এর সাথে যুক্ত হওয়ার জন্য কিছু নিয়ম বা যোগ্যতা অর্জনের প্রয়োজন আছে।

এই ব্লগের শেষ মতামত,

আপনি চাইলে ফেসবুককে বিনোদনের পাশাপাশি আর্থিক মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। এর জন্য আপনাকে বেশি পরিশ্রম করতে হবে না। Facebook Reels আপনার বিবেচনা করার জন্য একটি আদর্শ উপায়। আপনি তাদের অফিসিয়াল সাইটে Facebook রিল সম্পর্কে আরও জানতে পারেন। আপনার এই নিবন্ধটি সম্পর্কে মন্তব্য করে আমাদের জানান। নতুন প্রযুক্তি সম্পর্কিত বিভিন্ন ধরনের নিবন্ধ এবং টিপস এবং কৌশল পেতে আমাদের ওয়েবসাইটে চোখ রাখুন।

About the Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may also like these

Share via
Copy link